শিরোনাম:
●   স্বামী ঘর ছেড়ে পালানো গৃহবধুকে নিয়ে মা উপস্থিত হলেন থানায় ●   ভারতের প্রথম জাতি-ধর্মহীন নাগরিকের স্বীকৃতি পেল স্নেহা ●   সাবেক এমপি বদির ৩ ভাই, ভাগিনা, ফুফাতো ভাইসহ ১০২ ইয়াবা কারবারীর আত্মসমর্পণ ●   লামায় চেয়ারম্যান প্রার্থী ইসমাইল এর জানাজায় হাজা‌রো মানুষের ঢল ●   আত্রাইয়ে প্রচারনায় ব্যস্ত এবাদুর রহমান ●   গাইবান্ধায় রামসাগর এক্সপ্রেসে চালুর দাবিতে রেলওয়ে ষ্টেশনে অবস্থান কর্মসূচী ●   চলনবিলে ধান ও চালের বাজারে অসংগতির ফলে ব্যবসায় স্থবিরতা : ৭০ শতাংশ মিল চাতাল বন্ধ ●   খাগড়াছড়িতে আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে মানববন্ধন ●   আমেরিকান নাগরিকদের পাকিস্থান থেকে দেশে ফেরার নির্দেশ দিয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন ●   ভারত সরকার পাকিস্থানের বিরুদ্ধে একশন শুরু করে দিয়েছে ●   আখেরী মোনাজাতের মধ্য দিয়ে পাকশীতে ৮৯ তম ওয়াজ মাহফিল সমপন্ন ●   নাইক্ষ্যংছ‌ড়ি‌তে ১১ বি‌জি‌বি’র অ‌ভিযা‌নে ৪ লক্ষ ৪০‌ হাজার ইয়াবা উদ্ধার ●   ঝিনাইদহে ফেনসিডিলসহ ভুয়া সাংবাদিক গ্রেফতার ●   খাটের নিচে পাতিলের ভেতর শিশুর লাশ : ঘাতক পিতা পলাতক ●   স্মৃতির অতলে হারিয়ে যেতে বসেছে শহীদ মিনার ●   বান্দরবা‌নে ভয়াবহ আগুনে বসতবা‌ড়িসহ আইস ফ্যাক্ট‌রি ভস্মীভূত ●   শ্বাশুরী হত্যায় ঘাতক পুত্রবধু আটক ●   বাঘার ইউএনওর ফোন নাম্বর ক্লোন করে চাঁদা দাবি ●   লামায় ঘাতক টমটম কে‌ড়ে নিল মাদ্রাসা ছাত্রের প্রাণ ●   আলীকদমে ইট ভাটা মালিকদের রাম রাজত্ব নিরব দর্শকের ভূমিকায় স্থানীয় প্রশাসন ●   ভালোবাসা ভাগাভাগি করল হরিজন শিশুরা ●   স্বৈরাচার বিরোধী প্রতিরোধ দিবস উপলক্ষে গাইবান্ধায় ছাত্রফ্রন্টের মিছিল সমাবেশ ●   ঝালকাঠিতে ভালোবাসা দিবসে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ ●   মির্জাগঞ্জে আধুনিকতার ছোয়া লাগাতে চান খান মো. আবু বকর সিদ্দিকী ●   বরকলে ১টি শর্টগানসহ কার্তুজ উদ্ধার ●   আদিবাসী তরুণীকে গুলশানে ধর্ষণ ●   উপজেলা পরিষদ নির্বাচন : বান্দরবানে মাঠে নামছে আ’লীগের ৭ প্রার্থী ●   অশ্লীল ভিডিও প্রকাশের জের : শিক্ষিকার শাস্তির দাবিতে খাগড়াছড়িতে মানববন্ধন ●   বাংলাদেশে তামাক ব্যবহার কমেছে : তথ্যমন্ত্রী ●   ১টি ৮০ কেজী ওজনের বার্গার মাছের দাম ১লক্ষ ২০হাজার টাকা : ঐতিহ্যবাহী পোড়াদহ মেলা সম্পন্ন
রাঙামাটি, রবিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, ৪ ফাল্গুন ১৪২৫


CHT Media24.com অবসান হোক বৈষম্যের
শনিবার ● ১১ নভেম্বর ২০১৭
প্রথম পাতা » কৃষি » অর্গানিক চাষাবাদে কৃষকদের উদ্বুর্দ্ধ করতে কৃষি কর্মকর্তার সংগ্রাম
প্রথম পাতা » কৃষি » অর্গানিক চাষাবাদে কৃষকদের উদ্বুর্দ্ধ করতে কৃষি কর্মকর্তার সংগ্রাম
১৮০ বার পঠিত
শনিবার ● ১১ নভেম্বর ২০১৭
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

অর্গানিক চাষাবাদে কৃষকদের উদ্বুর্দ্ধ করতে কৃষি কর্মকর্তার সংগ্রাম

---ঝিনাইদহ প্রতিনিধি :: (২৭ কার্তিক ১৪২৪ বাঙলা : বাংলাদেশ সময় রাত ৫.৪৭মি.) কোনো ধরনের কৃত্রিম সার, রাসায়নিক, কীটনাশক ব্যবহার ছাড়াই সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক পদ্ধতিতে উৎপাদিত ফসলকেই অর্গানিক বলা হয়। জৈব সার ব্যবহারে মাটির উর্বরতা দীর্ঘস্থায়ী হয়। উৎপাদিত ফসল হয় স্বাস্থ্যসম্মত ও নিরাপদ। ঝিনাইদহ সদর উপজেলায় বিষমুক্ত চাষাবাদে কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করার জন্য সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছেন ঝিনাইদহ সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ড. খান মুহাম্মদ মনিরুজ্জামান। তার পরামর্শে ইতিমধ্যে উপজেলার কয়েক’শ কৃষক চাষাবাদ করছেন জৈব পদ্ধতিতে। এমনই একজন কৃষক সদর উপজেলার লক্ষীপুর গ্রামের ইদ্রিস আলী। আগে রাসায়নিক সার ব্যবহার করে চাষাবাদ করলেও সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তার পরামর্শে তিনি এখন জৈব পদ্ধতিতে চাষাবাদ করছেন। এতে সফলও হয়েছেন তিনি। ইতিমধ্যে গ্রীণচাষী খেতাব অর্জন করেছেন তিনি। তার উৎপাদিত সবজি বা ফসলাদির চাহিদা রয়েছে ওই এলাকায়। আর একজন কৃষক সদর উপজেলার গান্না ইউনিয়নের দুদুমিয়া। ইতিমধ্যে তার কয়েক বিঘা জমিতে শুরু করেছেন জৈব পদ্ধতিতে চাষাবাদ। সেক্সফেরোমন ট্রাপ ব্যবহার, কোচো কম্পোস্ট সার ব্যবহার করছেন তার জমিতে। কৃষক দুদমিয়া জানান, সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ড. খান মুহাম্মদ মনিরুজ্জামান এর পরামর্শে তিনি রাসায়নিক সার ব্যবহার বাদ দিয়ে জৈব পদ্ধতিতে চাষাবাদ করছেন। এতে মাটির স্বাস্থ্য সুরক্ষায় যেমন জৈব সারের প্রয়োজন তেমনি উৎপাদিত সবজি মানব দেহের জন্যেও নিরাপদ ও সুস্বাস্থ্য রক্ষা হতে পারে।

তাই রাসায়নিক সার ব্যতিরেকে জৈব সারের ব্যবহার করছেন বলে তিনি জানান। ঝিনাইদহ সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ড. খান মুহাম্মদ মনিরুজ্জামান বলেন, বাজার থেকে আমরা যেসব খাবার-দাবার ও সবজি কিনে খাই, তার প্রায় সবগুলোর মধ্যেই বিভিন্ন কৃত্রিম সার, রাসায়নিক মিশ্রিত থাকে। এর ক্ষতিকারক প্রভাব আমাদের সবার উপর পড়ছে। কৃত্রিম সার, রাসায়নিক দ্রব্য, ফরমালিন ইত্যাদির যথেচ্ছ ব্যবহারে ক্যান্সার, ডায়াবেটিস, লিভারের ক্ষতি সাধনসহ নানাবিধ রোগব্যাধির প্রকোপ মারাত্মক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। তাই অর্গানিক খাবার ও শাক-সবজি আমাদের নিজেদের জন্য তো দরকারই, শিশুদের জন্য এর প্রয়োজন আরও বেশি।এ কারণেই সদর উপজেলাকে বিষ মুক্ত চাষাবাদের মডেল উপজেলা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছি। এছাড়াও সদর উপজেলায় ২৮০ টি সিআইজি গ্রুপ ও ৩২০ টি এসএফজি গ্রুপ তৈরী করা হয়েছে। এই কৃষক সংগঠনের মাধ্যমে কৃষকদের জৈব চাষে উঠান বৈঠক ও মাঠ দিবসের মাধ্যমে পরামর্শ প্রদাণ করা হচ্ছে। তিনি বলেন, জৈবসার প্রয়োগ ও জৈব কীটনাশক প্রযুক্তি ব্যবহার করে ধানসহ বিভিন্ন ধরনের ফসল এবং সবজির উৎপাদন খরচ শতকরা ২৫-৩০ শতাংশ কমিয়ে আনা সম্ভব। জৈবসার ব্যবহার করলে ফসলের উৎপাদন খরচ রাসায়নিক সারের চেয়ে শতকরা ৫০-৬০ শতাংশ কম হয়। অর্গানিক খাবার ও শাক-সবজি হয়ত সামান্য ব্যয়বহুল। তবুও ভবিষ্যত প্রজন্মের কথা মাথায় রেখে আমাদের রাসায়নিক সার ও কীটনাশক বর্জন করতে হবে। আর এতে সবথেকে বেশি প্রয়োজন সচেতনতা। তবেই আমরা ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য একটি বিষমুক্ত দেশ গড়তে পারবো।



পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)