শিরোনাম:
●   সাংবাদিক মোস্তফা কামাল আর নেই : জুঁই চাকমা’র শোক প্রকাশ ●   শ্রীপুরে বিএনপি নেতা মাওলানা রুহুল আমিন আটক ●   কালীগঞ্জের বিএনপি প্রার্থী মিলন কারাগারে ●   আঞ্চলিক দলের বাধাঁ উপেক্ষা করে দীঘিনালায় সমাবেশ ●   ইলিয়াসপত্নী লুনার প্রার্থীতা স্থগিতের বিষয়ে এলাকাবাসীর প্রতিক্রিয়া ●   গৌরীপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত-১ : অর্ধশতাধিক বাড়ি-ঘরে অগ্নিসংযোগ ●   ১৫ ডিসেম্বর গাজীপুর মুক্ত দিবস ●   শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উদযাপনের সংবাদ ●   পলাশবাড়ী থানা পুলিশের উপর অতর্কিত হামলা ●   ধানের শীষের জোয়ার দেখে ক্ষমতাসীনরা দিশেহারা : লালু ●   কালীগঞ্জে বিএনপি’র প্রার্থী ফজলুল হক মিলন গ্রেফতার ●   বিশ্বনাথের ১৩টি খাল ও ৫টি হাওর খননের দাবীতে আবেদন ●   নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে প্রার্থীকে জরিমানা ●   গাজীপুরে বিএনপির নির্বাচনী প্রচারণায় হামলা ●   গাজীপুরে শ্রমিক-পুলিশ ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ●   গনগ্রেফতার বাড়িঘর ভাংচুর নির্বাচন তদন্ত কমিটির চেয়ারম্যনের কাছে লিখিত অভিযোগ ●   উশু প্রতিযোগিতায় বিকেএসপি চ্যাম্পিয়ন ●   গাইবান্ধায় সুমি হত্যায় স্বামী ও শ্বশুর-শাশুড়িকে গ্রেপ্তারের দাবি ●   ১৪ ডিসেম্বর মোরেলগঞ্জ মুক্ত দিবস ●   মহালছড়িতে সারাদিন প্রচারণায় ব্যস্ত কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা ●   সরিষা ফুলের মৌ মৌ গন্ধে মুখরিত ফসলের মাঠ ●   সিঙ্গিনালাতে শ্রীমৎ উ পেন্ডিতা মহাথের এর অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া উদযাপনের ব্যাপক প্রস্তুতি ●   প্রতিদিন শত শত মন কাঠ পোড়াচ্ছেন কালীগঞ্জ এ.এস.বি.এম ব্রিকস্ ●   বান্দরবানে বিএনপি প্রার্থী সাচিং প্রুর সাংবাদিকদের সাথে মত বিনিময় ●   গাইবান্ধায় মনোনয়ন প্রত্যাহারে ভোটের মাঠে ৩৮ জন প্রার্থী ●   নওগাঁর জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে কৃত্রিম উপায়ে মধু সংগ্রহ ●   বান্দরবা‌নে ‌নির্বাচন চলাকা‌লীন পযর্টন ভ্রম‌নে নি‌ষেধাজ্ঞা ●   বান্দরবানে রোকেয়া দিবসে শ্রেষ্ঠ মা হিসেবে সম্মাননা পেলেন রুবি ●   আলীকদমে ইটভাটা মালিকদের রাম রাজত্ব : চলছে বৃক্ষ নিধনের মহোৎসব ●   বিশ্বনাথে সাংবাদিকদের সাথে এহিয়া চৌধুরী’র মতবিনিময়
রাঙামাটি, শনিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ১ পৌষ ১৪২৫


CHT Media24.com অবসান হোক বৈষম্যের
সোমবার ● ২৬ নভেম্বর ২০১৮
প্রথম পাতা » গাইবান্ধা » অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর প্রতিনিধিত্ব করতে শিপন রবিদাসের দলীয় মনোনয়ন পত্র উত্তোলন
প্রথম পাতা » গাইবান্ধা » অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর প্রতিনিধিত্ব করতে শিপন রবিদাসের দলীয় মনোনয়ন পত্র উত্তোলন
৭৪ বার পঠিত
সোমবার ● ২৬ নভেম্বর ২০১৮
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর প্রতিনিধিত্ব করতে শিপন রবিদাসের দলীয় মনোনয়ন পত্র উত্তোলন

---প্রেস বিজ্ঞপ্তি :: আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশের অনগ্রসর আদিবাসী-দলিত ও সংখ্যালঘুদের প্রতিনিধি হয়ে সংসদে কথা বলার ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ রবিদাস ফোরাম (বিআরএফ) এর প্রতিষ্ঠাতা ও মহাসচিব শিপন রবিদাস প্রাণকৃষ্ণ। তিনি গতকাল (২৪ নভেম্বর, ২০১৮) সন্ধ্যায় বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির হয়ে কোদাল প্রতিকে বগুড়া-০১ (সারিয়াকান্দি-সোনাতলা) আসনে মনোনয়ন পত্র গ্রহণ করেন। তিনি এ আসনে বাম গণতান্ত্রিক জোটের একমাত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনীত হয়েছেন।

রাজধানীর বিজয়নগরস্থ পার্টি কার্যালয়ে মনোনয়ন পত্র প্রদানকালে এসময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, পলিটব্যুরোর সদস্য বহ্নিশিখা জামালী, পার্টির রাজনৈতিক পরিষদের সদস্য আকবর খান, বাংলাদেশ রবিদাস ফোরাম (বিআরএফ) এর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি চাঁনমোহন রবিদাস সহ অন্যান্য দলীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, শিপন রবিদাস প্রাণকৃষ্ণ দীর্ঘ সময় যাবৎ সমতলের আদিবাসী, দলিত, হরিজন, তৃতীয় লিঙ্গ ও অনগ্রসর জনগোষ্ঠীকে নিয়ে কাজ করে আসছেন। তিনি বিগত সময়ে আদিবাসী ছাত্র পরিষদ, বগুড়া জেলা শাখার সভাপতি এবং কেন্দ্রীয় কমিটির সহ সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন। ৩য় বারের মতো বাংলাদেশ দলিত ও বঞ্চিত জনগোষ্ঠী অধিকার আন্দোলন (বিডিইআরএম) এর বগুড়া জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক হিসেবে সারা বগুড়া জেলার দলিত ও অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর অধিকার আদায় ও সুসংগঠিত করতে সর্বোচ্চ ভূমিকা রাখছেন। এছাড়াও তিনি মাইনোরিটি রাইটস ফোরাম বাংলাদেশ, জাতীয় আদিবাসী পরিষদ, ভূমিবল সমাজ পার্টি সহ বেশকিছু সামাজিক-সাংস্কৃতিক ও অধিকার ভিত্তিক সংগঠনের সাথে সম্পৃক্ত আছেন। বর্তমানে শিপন রবিদাস বাংলাদেশের ৮ লক্ষ্যাধিক অনগ্রসর রবিদাস জনগোষ্ঠীর আর্থ-সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও জীবনমান উন্নয়ন এবং মানবাধিকার সুরক্ষায় ১১ দফা দাবিতে সক্রিয় সংগঠন “বাংলাদেশ রবিদাস ফোরাম (বিআরএফ)” এর মহাসচিব হিসেবে কাজ করছেন। সংগঠনটি সারাদেশের এপর্যন্ত ৬৭টি শাখায় সাধ্যমতো কাজ করে যাচ্ছে।

মনোনয়ন পত্র গ্রহণকালে শিপন রবিদাস প্রাণকৃষ্ণ বলেন, “বাংলাদেশের আনুমাণিক ৩০ লক্ষ আদিবাসী, ৬৫ লক্ষ দলিত, ১৫ লক্ষ হরিজন, ১৫ লক্ষ চা-শ্রমিক সহ আরও অন্যান্য অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর সর্বমোট সংখ্যা প্রায় এক কোটির বেশি। কিন্তু জাতীয় সংসদে এই বিপুল পরিমান জনগোষ্ঠীর প্রতিনিধি অনুপস্থিত। সংখ্যানুপাতে এই সকল জনগোষ্ঠীর প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করা সময়ের দাবী। রাষ্ট্রকে এক্ষেত্রে মানবিক আচরণ করতে হবে। নির্বাচনী মূল¯্রােত প্রতিযোগিতায় জয়ী হয়ে আসা এই বিপুল পরিমান জনগোষ্ঠীর জন্য অনেক বড় একটি চ্যালেঞ্জ। সেই চ্যালেঞ্জ গ্রহন করবার মতো পর্যাপ্ত প্রস্তুতি বা সামর্থ দু’টোর কোনটিই তাদের নেই সঙ্গত কারনেই। তাই সংরক্ষিত আসনের ব্যবস্থা করে আমাদের নিজেদের কষ্টের কথা নিজেদেরকেই বলার সুযোগ করে দিতে হবে খোদ রাষ্ট্রকেই। নয়তো এই বাংলা প্রকৃত অর্থে সকলের বাংলা হয়ে উঠবে না। মূলতঃ অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর মাঝে রাজনৈতিক সচেতনতা ও উৎসাহ-উদ্দীপনা জাগিয়ে তুলতেই আমি সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হবার ইচ্ছে প্রকাশ করেছি। যাতে করে অন্যরাও অনুপ্রাণিত হয়ে আগামীতে এগিয়ে আসে। আপনাদের সকলের আশির্বাদ ও সমর্থণ কামনা করছি।”



আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)