শিরোনাম:
●   রাঙামাটিতে আবারও ইয়াবা আটক করেছে ১২ বি‌জি‌বি’র জোয়ানরা ●   ছাত্রলীগের হামলার নিন্দা জানিয়েছে রাঙামাটি জেলা ছাত্রদল ●   দুর্নীতি ও দলীয় করণ মুক্ত প্রশাসন গড়ে তুলতে কোদাল মার্কায় ভোট দিন : জুঁই চাকমা ●   রাজধানীতে বিএনপি’র প্রার্থী মির্জা আব্বাসের উপর হামলা : আহত-৬০ ●   চলনবিল এখন মধু’র ভান্ডার ●   ৩০ ডিসেম্বর গণজাগরণ হবে : গাজীপুরে রব ●   চাটমোহরে মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে স্বামী-স্ত্রী নিহত ●   নওগাঁয় ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প ●   পুলিশি তৎপরতায় মিছিল করতে পারেনি বিশ্বনাথ বিএনপি ●   বাউফলে বিএনপি’র ১২ নেতা কর্মীকে কুপিয়ে জখম ●   খাগড়াছড়ি হানাদার মুুক্ত দিবসে র‌্যালী ●   গাইবান্ধায় মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক বইপড়া প্রতিযোগিতা ●   হলিবিডি টুয়েন্টিফোর ডটকম’র নির্বাহী সম্পাদক অসুস্থ, দোয়া কামনা ●   পতাকার ফেরিওয়ালা বকুল মিয়া ●   সাংবাদিক মোস্তফা কামাল আর নেই : জুঁই চাকমা’র শোক প্রকাশ ●   শ্রীপুরে বিএনপি নেতা মাওলানা রুহুল আমিন আটক ●   কালীগঞ্জের বিএনপি প্রার্থী মিলন কারাগারে ●   আঞ্চলিক দলের বাধাঁ উপেক্ষা করে দীঘিনালায় সমাবেশ ●   ইলিয়াসপত্নী লুনার প্রার্থীতা স্থগিতের বিষয়ে এলাকাবাসীর প্রতিক্রিয়া ●   গৌরীপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত-১ : অর্ধশতাধিক বাড়ি-ঘরে অগ্নিসংযোগ ●   ১৫ ডিসেম্বর গাজীপুর মুক্ত দিবস ●   শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উদযাপনের সংবাদ ●   পলাশবাড়ী থানা পুলিশের উপর অতর্কিত হামলা ●   ধানের শীষের জোয়ার দেখে ক্ষমতাসীনরা দিশেহারা : লালু ●   কালীগঞ্জে বিএনপি’র প্রার্থী ফজলুল হক মিলন গ্রেফতার ●   বিশ্বনাথের ১৩টি খাল ও ৫টি হাওর খননের দাবীতে আবেদন ●   নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে প্রার্থীকে জরিমানা ●   গাজীপুরে বিএনপির নির্বাচনী প্রচারণায় হামলা ●   গাজীপুরে শ্রমিক-পুলিশ ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ●   গনগ্রেফতার বাড়িঘর ভাংচুর নির্বাচন তদন্ত কমিটির চেয়ারম্যনের কাছে লিখিত অভিযোগ
রাঙামাটি, রবিবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ২ পৌষ ১৪২৫


CHT Media24.com অবসান হোক বৈষম্যের
বৃহস্পতিবার ● ৬ ডিসেম্বর ২০১৮
প্রথম পাতা » রাজশাহী » দুর্গাপুরে ফরম পূরণে অতিরিক্ত টাকা ফেরত পেল ১৪ পরীক্ষার্থী
প্রথম পাতা » রাজশাহী » দুর্গাপুরে ফরম পূরণে অতিরিক্ত টাকা ফেরত পেল ১৪ পরীক্ষার্থী
৩৭ বার পঠিত
বৃহস্পতিবার ● ৬ ডিসেম্বর ২০১৮
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

দুর্গাপুরে ফরম পূরণে অতিরিক্ত টাকা ফেরত পেল ১৪ পরীক্ষার্থী

---রাজশাহী প্রতিবেদক :: রাজশাহীর একটি স্কুলে এ বছরের এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণে আদায় করা হয়েছিল অতিরিক্ত টাকা। এ নিয়ে জেলা প্রশাসকের কাছে অভিযোগ করেছিলেন অভিভাবকেরা। এর প্রেক্ষিতে শনিবার ১৪ জন পরীক্ষার্থী তাদের অতিরিক্ত টাকা ফেরত পেয়েছে। এরা এবার জেলার দুর্গাপুর উপজেলার পুরান তাহিরপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে।

স্কুলটি থেকে এবার মোট ১১৮ জন পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। তাদের সবার কাছ থেকেই নানা খাত দেখিয়ে ফরম পুরণের সময় অতিরিক্ত টাকা আদায় করা হয়। আর এই ১১৮ পরীক্ষার্থীর মধ্যে নির্বাচনি পরীক্ষায় পাস করে মাত্র ১৯ জন। যারা ফেল করে তাদের কাছ থেকে অস্বাভাবিক বেশি টাকা আদায় করা হয়। কিন্তু কোনো পরীক্ষার্থীকেই রশিদ দেওয়া হয়নি। এ নিয়ে গত ১৩ নভেম্বর অভিভাবকেরা জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ করেন।

এরপর গত বৃহস্পতিবার অভিযোগটি তদন্ত করে দেখার জন্য দুর্গাপুরের ইউএনও লিটন সরকারকে নির্দেশ দেন জেলা প্রশাসক। শনিবার সকালে তিনি অভিযোগ তদন্তে স্কুলে যান। স্কুলে যান উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নাজমুল আলমও। এছাড়া স্কুলের সব পরীক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকেরাও ছুটে যান। তারা শিক্ষা কর্মকর্তা ও ইউএনওকে অতিরিক্ত টাকা আদায়ের বিষয়টি অবহিত করেন।

স্কুলের নথিপত্র ঘেঁটে ইউএনও দেখেন, বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষাবোর্ড নির্ধারিত ফি ১ হাজার ৮৭০ এবং মানবিকের জন্য ১ হাজার ৭৭০ টাকা। কিন্তু ২ হাজার ১৫০ টাকার কম কারও কাছ থেকেই নেওয়া হয়নি। এর মধ্যে ১৪ জনের কাছ থেকে নেওয়া হয় ৩ হাজার ১৫০ টাকা করে। তাদের অতিরিক্ত টাকা শনিবার ফেরত দেওয়া হয়েছে। স্কুল কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে টাকা নিয়ে ইউএনও এবং শিক্ষা কর্মকর্তা তা পরীক্ষার্থীদের বুঝিয়ে দেন।

স্কুলটির পরীক্ষার্থী নাহিদ হোসেনের কাছ থেকে ৩ হাজার ১৫০ টাকা নেওয়া হয়েছিল। ইউএনও আসার খবরে তার প্রতিবন্ধী বাবা আজিবর রহমান হাতে টানা ভ্যানে চড়ে স্কুলে যান। ভ্যান থেকে নেমে হামাগুড়ি দিয়ে তিনি ইউএনওর কাছে গিয়ে অতিরিক্ত টাকা নেওয়ার অভিযোগ করেন। পরে তার ছেলে নাহিদ টাকা ফেরত পায়।

তাই একগাল হেসে আজিবর বলেন, টেকা লিবে কিসের? হাওলাত করা টেকা। ছেলি পরীক্ষা দিবি বলি গিরামের দুজনের থেক টেকা ধার নিসিলাম। নাহিদ বলে, তার বাবা প্রতিবন্ধী হওয়ার কারণে দিনমজুরের কাজ করে তাকেই সংসার চালাতে হয়। তাই সব বিষয়ে পাস করতে পারেনি। এই সুযোগেই তার কাছ থেকে বেশি টাকা আদায় করেছিল স্কুল কর্তৃপক্ষ।

পরীক্ষার্থীদের টাকা ফেরত দেওয়ার পর তাদের রশিদ দেওয়ার জন্যও স্কুল কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন ইউএনও। পরে সব পরীক্ষার্থীকেই টাকা দেয়ার রশিদ দেওয়া হয়। পরীক্ষার্থীদের ভাষ্যমতে, এর আগে যখন তারা রশিদ চেয়েছিল তখন প্রধান শিক্ষক ইউসুফ আলী সরদার তাদের বলেছিলেন, ফরম পূরণের ফি আদায়ের ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের রশিদ দেয়ার বিধান নেই।

অভিভাবকরা ইউএনও’র কাছে অভিযোগ করেন, স্কুলের শিক্ষক রহিদুল ইসলাম ও সাইদুর রহমান কোচিং করান। তাদের কাছে কোচিং না করার কারণে শিক্ষার্থীদের ফেল করানো হয়েছে। আর প্রধান শিক্ষক ইউসুফ আলী সরদার অভিভাবকদের না জানিয়েই গোপনে স্কুলের প্রাক্তন অফিস সহকারী আবদুস সাত্তার প্রামানিককে স্কুল পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক করেছেন। এরপর তারা দুজনে মিলে নানা আর্থিক অনিয়ম আর দুর্নীতি করে যাচ্ছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অভিযোগ অস্বীকার করেছেন প্রধান শিক্ষক ও স্কুল কমিটির আহ্বায়ক। তাদের দাবি, স্কুলের কল্যাণেই অতিরিক্ত টাকা আদায় করা হয়েছিল। যাদের কাছ থেকে অতিরিক্ত টাকা নেওয়া হয়েছিল, তাদের সবার টাকা ফেরত দেওয়া হয়েছে। অন্য পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকেও আদায় করা টাকার পরিমাণ শিক্ষাবোর্ডের নির্ধারিত টাকার চেয়ে বেশির কারণ তাদের কাছে স্কুলের পাওনা ছিল।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নাজমুল আলম বলেন, আমি দুর্গাপুরে আসার পর থেকেই স্কুলটির বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ পাচ্ছি। কিন্তু এ উপজেলায় ৭০টা স্কুল। একটা স্কুলের পেছনেই সময় দেওয়া যায় না। তবে এবার আমরা স্কুলটির ব্যাপারে ‘সিরিয়াস’ হয়েছি। ২০১৯ সালের প্রথম থেকে স্কুলটিতে কোনো অনিয়ম থাকবে না।

ইউএনও লিটন সরকার বলেন, স্কুলটির এসএসসি পরীক্ষার্থীদের সবার কাছ থেকেই বোর্ডের নির্ধারিত টাকার চেয়ে বেশি আদায় করা হয়েছে। তবে ১৪ জন ছাড়া বাকিদের নানাখাতে খরচ দেখানো হয়েছে। তাই তাদের টাকা ফেরত দেওয়া যায়নি। তবে ১৪ জনের টাকা ফেরত দেওয়া হয়েছে।



পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)