শিরোনাম:
●   পুলিশের অভিযানে চার ছিনতাইকারী গ্রেফতার ●   পাহাড়ে অস্ত্রধারীদের হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে বান্দরবানে রাজপথে আ’লীগ ●   গাইবান্ধায় খোলা আকাশের নিচে পাঠদান ●   সহোদর দুই ভাইকে হত্যার দায়ে ৪ জনের মৃত্যুদন্ড ●   বিশ্বনাথে ৯ জনের জামানত বাজেয়াপ্ত ●   শিক্ষকের অনৈতিক কর্মকান্ডের প্রতিবাদে ঝাঁড়ু মিছিল ●   প্রযুক্তি খাতে নারীদের অংশগ্রহণ বাড়াতে হবে : চুয়েট ভিসি ●   বাঘাইছড়িতে নিহতদের ময়না তদন্ত সম্পন্ন : মামলা হয়নি ●   মির্জাগঞ্জে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থী যারা ●   আলীকদমে আবুল কালাম, শিরিনা আক্তার ও কফিল উদ্দিন নির্বাচিত ●   গাইবান্ধার ৫ উপজেলায় ২ বিদ্রোহী, ৩ আ’লীগ বিজয়ী ●   রাঙামাটিতে পার্বত্য ভূমিবিরোধ নিষ্পত্তি কমিশনের বৈঠক অনুষ্ঠিত ●   বিশ্বনাথে নুনু-হাবিব-জুলিয়া নির্বাচিত ●   ঝিনাইদহে ১০৭ ইটভাটার মধ্যে পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্রসহ নিবন্ধন রয়েছে ১৮ টি ●   গাবতলীতে রবিন,মুক্তা ও রেকসেনা নির্বাচিত ●   মহালছড়িতে বিমল কান্তি চাকমা,জসিম উদ্দিন ও সুইনুচিং চৌধুরী বিজয়ী ●   রাঙামাটিতে নির্বাচনকর্মীদের ওপর হামলায় ইসির নিন্দা ●   রাঙামাটিতে প্রিজাইডিং অফিসারসহ ৬ জনকে ব্রাশ ফায়ার করে হত্যা ●   রাস্তা দখল করে অটোরিক্সা ষ্টেশন ●   শিশু চুরির ৬ দিন পর লাশ উদ্ধার : আটক - ৬ ●   অপহরণের দায়ে যুবক কারাগারে : পরিবারের দাবী সাজানো নাটক ●   শিশু দিবসে গুইমারতে স্থানীয়দের চিকিৎসা সেবা দিল সেনাবাহিনী ●   আত্রাইয়ে র‌্যাব এর টহল জোরদার ●   রাউজানে অগ্নিকাণ্ডে বসতঘর ভস্মীভূত ●   রাঙামাটিসহ দেশব্যাপী বঙ্গবন্ধুর ৯৯ তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস পালিত ●   রাজশাহীতে প্রতিবন্ধী ছাত্রী অপহরণের ৪ দিন পরও উদ্ধার হয়নি ●   গাইবান্ধায় জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহ পালন ●   লামায় জীপ চাপায় নির্মান শ্রমিক নিহত ●   আদম বেপারীর খপ্পরে পড়ে পরিবার নিয়ে পথে পথে ঘুরছে নওগাঁর সিরাজুল ●   প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কথা বলায় ক্রীড়া সংগঠক কিরণ গ্রেফতার
রাঙামাটি, বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ২০১৯, ৭ চৈত্র ১৪২৫


CHT Media24.com অবসান হোক বৈষম্যের
শুক্রবার ● ২২ ফেব্রুয়ারী ২০১৯
প্রথম পাতা » পর্যটন » সিলেটের পর্যটন স্পটগুলোতে লাখো পর্যটকের ভীড়
প্রথম পাতা » পর্যটন » সিলেটের পর্যটন স্পটগুলোতে লাখো পর্যটকের ভীড়
৭০ বার পঠিত
শুক্রবার ● ২২ ফেব্রুয়ারী ২০১৯
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

সিলেটের পর্যটন স্পটগুলোতে লাখো পর্যটকের ভীড়

---সিলেট প্রতিনিধি ::  অমর ২১ শে ফেব্রয়ারি  ও সাপ্তাহিক ছুটি মিলিয়ে পাওয়া তিনদিনের ছুটিকে কাজে লাগিয়ে সিলেটে বেড়াতে এসেছেন লাখো মানুষ। এত পর্যটক এক সাথে এভাবে সিলেটে অতীতে কখনো দেখা যায়নি। এতে করে অবাক হচ্ছেন হোটেল মালিক বা সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারাও।

তিনদিনের ছুটিকে কাজে লাগিয়ে শীতের শেষ সময় ও বসন্তে দিনের গরম-রাতের হিমশীতলতার ছোঁয়া নিতে সিলেটের ভীড় জমিয়েছেন ভ্রমন পিপাসু সৌন্দর্য্য প্রেমিক পর্যটকরা। ফলে পর্যটকে সরগরম হয়েছে সিলেট নগরীর পর্যটন স্পটগুলো। দেশের বিভিন্ন প্রান্তের পর্যটকের পাশাপাশি ২১ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের ছুটির সঙ্গে সাপ্তাহিক ছুটি মিলিয়ে পরিবার পরিজন নিয়ে ঘুরতে আসছেন স্থানীয়রাও।

ফলে কোথাও জায়গা নেই! না বন্দরবাজার-জিন্দাবাজারের মধ্যমানের হোটেলগুলোতে, না দরগাগেইট এলাকার। সবগুলোতে ঝুলানো ‘সিট খালি নেই’। মৌসুমের শেষ প্রান্তের টানা এ ছুটিতে সিলেটে তিল ধারণের ঠাঁই নেই অবস্থা বিরাজ করছে।

বৃহস্পতিবারের সিলেট নগরীর চিত্রটা ছিল এমনই। একেতো মহান একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের ছুটি, তার সাথে শুক্র ও শনিবারের নিয়মিত সরকারি ছুটি মিলিয়ে যারা ৩ দিনের সিলেট সফরে এসেছিলেন বসন্তটাকে আরও রাঙিয়ে নিতে, তাদের আগমনের অভিজ্ঞতাটা মোটেও সুখকর নয়, তা বলাই বাহুল্য। প্রকৃতির অপরূপ লীলাভূমি সিলেটের আকর্ষণ আরও কয়েকগুণ বাড়িয়ে দিয়েছেন ওলিকুল শিরোমনি হযরত শাহ জালাল (র.) ও তাঁর সুযোগ্য ভাগ্নে হযরত শাহপরাণ (র.)। তাঁদের সাথে আছেন এ অঞ্চলের আদি মুসলিম হযরত গাজী বুরহান উদ্দিন (র.)।
জাফলং-রাতারগুল-লালাখাল-পাংথুমাই-লোভাছড়া-শাপলা বিল-ভোলাগঞ্জসহ সিলেটের অন্যান্য পর্যটন কেন্দ্রগুলো যেমন সারাদেশের পর্যটকদের সিলেটমুখী করছে, তেমনি আধ্যাত্মিকতাবাদে বিশ্বাসী ধর্মপ্রাণ মানুষের কাছেও এই মহানগরী অতিগুরুত্বপূর্ণ।

আর শুক্রবার সামনে রেখে বৃহস্পতিবার শাহজালাল (র.) এর দরগাহ প্রাঙ্গনে যেসব ধর্মীয় অনুষ্ঠানাদি হয় তাও মুসল্লীদের কাছে বিশেষ গুরুত্ব ও তাৎপর্যপূর্ণ। তাই এই দিনটিতে এমনিতেই সিলেটে পর্যটকরা আসেন অন্যান্য দিন থেকে বেশি। গতকাল ২১ ফেব্রুয়ারিকে (বৃহস্পতিবার) তা আরো বাড়িতে দিয়েছে পর্যটকদের আগমনের স্রোত।

৩ দিনের ছুটি উপভোগে সিলেটমুখী মানুষের ঢল নেমেছিল। বুধবার সন্ধ্যার পর থেকেই মাজার এলাকা ও রাত ৯টার পর থেকে সিলেট মহানগরীর প্রায় সব আবাসিক হোটেলের রিসিপশনে ‘সিট খালি নেই’ ঝুলতে থাকে। অনেকেই সিট জোগাড়ে ব্যর্থ হয়ে চেনা-জানাদের ফোনে সমস্যাটি অবগত করতে থাকেন। এতে সমাধানও জোটেছে কারও কারও ভাগ্যে। কারও বাসায় আড্ডা দিয়ে রাত কাটিয়েছেন। কেউবা ভ্রমনক্লান্তি দুর করতে মেঝে বা বারান্দায় অন্তত ঘুমাতে পেরেছেন। তবে সিলেট নগরীতে যাদের চেনা-জানা কেউ নেই, তারা সমস্যায় পড়েছেন বেশি। গোটা পরিবার নিয়ে তাদের হোটেল বা কোন ভবনের সিঁড়িতে আশ্রয় নিতে হয়েছে।

তেমনি একটি পরিবারের সাথে কথা হয় দক্ষিন সুরমার ফেমাস হোটেলের কথা হয় নেত্রকোনা পরিবার নিয়ে বেড়াতে আসা আলকাছ মিয়ার সাথে। তিনি এসেছিলেন মাজার জিয়ারত ও জাফলং ঘুরে দেখতে। মধ্যরাতে প্রাইভেট গাড়ী সিলেট পৌঁছে সিলেট নগরী তন্ন তন্ন করে অবশেষে উঠেছেন ফেমাস হোটেলে।

অন্য আরেক পর্যটক বলেন, ভাই ভোর রাতে সিলেটে পৌছে গোটা সিলেট নগরী ঘুরেও একটু বিশ্রামের জন্য কোন হোটেল পাইনি। এমনটি হবে জানলে আসতাম না। তবে চেষ্টা চলছে। দেখি কোথাও সিট পাওয়া যায় কি-না। কথা হয় বেশ কয়েকজন হোটেল মালিক বা ব্যবস্থাপকের সাথে। তারাও অবাক! ভীড় হবেই তেমন একটা অনুমান তারা আগে থেকেই করেছিলেন, তবে তা এমন পর্যায়ের হতে পারে তা কিন্তু কেউ কল্পনাই করেন নি। হযরত শাহজালাল (র: ) মাজার দরগাহ রোড আলমাস হোটেল, হোটেল আল-আরব, হোটেল উর্মি, হোটেল অনুপম, আল জালাল, আকসা, ময়রুন নেছা, আল আমিন, হোটেল জিয়া, হোটেল কোরেইশী, তালতলা এলাকার হোটেল ইস্ট ইন, হোটেল ব্রিটেনিয়া, হোটেল সুফিয়া, হোটেল গুলসানসহ বেশ কয়েকটি হোটেলে গিয়ে দেখা যায় হোটেলের সামনে সিট খালি নেই নোটিশ সাঁটানো। নগরীর প্রতিটি হোটেল বোর্ডারে পরিপূর্ণ থাকায় বুধবার রাতে নগরীর কোনো হোটেলেই সিট পাননি দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা পর্যটকরা।



পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)