শিরোনাম:
●   গলাচিপায় প্রতিবন্ধী কিশোরী ধর্ষণের অভিযোগ ●   আটকের পর দুই শতাধিক রিক্সা ফিরিয়ে দিল কুষ্টিয়া পুলিশ ●   সিলেটে তরুণী ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে পুরোহিত প্রাণগোবিন্দ গ্রেফতার ●   করোনায় প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগের সাবেক মহাপরিচালকসহ দুই জনের মৃত্যু ●   বিশ্বনাথে প্রতিপক্ষের লাঠির আঘাতে মহিলা নিহত ●   গোবিন্দগঞ্জে কাভার্ড ভ্যান চাপায় নিহত-৪ ●   লকডাউন ৩য় দিনে রাজস্থলীতে কঠোর অবস্থানে প্রশাসন ●   রাউজানে আ’লীগ নেতার হাতে গুলিবিদ্ধ এক ব্যবসায়ী ●   লকডাউন বাস্তবায়নে রাজস্থলী উপজেলার প্রশাসন কঠোর অবস্থানে ●   লক ডাউনের ১ম দিনেই কুষ্টিয়া কাঁচাবাজারে মানছেনা স্বাস্থ্যবিধি ●   গলাচিপায় ডাকাত সন্দেহে গ্রেপ্তার-২ ●   মোরেলগঞ্জে ডায়রিয়ার প্রকোপ : আক্রান্ত শতাধিক ●   লকডাউনে হাইকোর্টের ৪ ভার্চ্যুয়াল বেঞ্চ বিচারিক কাজ করবেন ●   দেশের বিভিন্ন স্থানে বেগম জিয়ার সুস্থতা কামনায় দোয়া মাহফিল ●   কুষ্টিয়ায় ডোবার পাড় ভেঙে এক নাীর মৃত্যু ●   যেভাবে পাওয়া যাবে ‘মুভমেন্ট পাস’ : প্রথম ঘণ্টায় সোয়া লাখ আবেদন জমা ●   পহেলা বৈশাখে ইউপিডিএফ-এর শুভেচ্ছা ●   মোরেলগঞ্জে ১০ টাকা দরের চাল বিতরণের সময় হামলার ঘটনায় আটক-১৩ ●   সাংবাদিকদের ‘মুভমেন্ট পাস’ নেওয়া লাগবে না : আইজিপি বেনজীর আহমেদ ●   মাদক সম্রাট মিন্টু র‌্যাব-৬’র জালে বন্দি ●   সর্বাত্মক লকডাউনের জন্য কলকারখানা চালু রাখার যুক্তি গ্রহণযোগ্য নয় ●   স্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্তী- দেশের উল্টোযাত্রা (২য় অংশ) ●   বিপ্লবী নেত্রী বহ্নিশিখা জামালী সংক্ষিপ্ত রাজনৈতিক জীবনী ●   এদেশে রাজনীতি করতে এসে কি আমরা পাপ করলাম, নাকি এদেশে জন্ম নেওয়া পাপ প্রশ্ন নুরের ●   করোনাকালিন কারাবন্দি আসামিদের আদালতে হাজির না করার নির্দেশ ●   করোনা দুর্যোগ মোকাবেলায় সমন্বিত জাতীয় উদ্যোগ গ্রহণ করুন - বাম গণতান্ত্রিক জোট ●   পাদুকা ব্যবসায়ী হাসান হত্যার প্রতিবাদে ব্যবসায়ীদের বিক্ষোভ : ওসির গ্রেফতার দাবি ●   মহালছড়িতে মা গঙ্গার উদ্দেশ্যে ফুল দিয়ে শুরু হলো পাহাড়িদের বৈসাবি উৎসব ●   মোরেলগঞ্জে আদম ব্যাপারীর খপ্পড়ে সর্বস্বান্ত আটটি পরিবার ●   সিএনজি চালক-যাত্রীর মধ্যে সংঘর্ষ : আহত -৬
রাঙামাটি, শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১, ৩ বৈশাখ ১৪২৮


CHT Media24.com অবসান হোক বৈষম্যের
রবিবার ● ৬ ডিসেম্বর ২০২০
প্রথম পাতা » অর্থ-বাণিজ্য » ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন চলনবিলের শুটকি শ্রমিকেরা
প্রথম পাতা » অর্থ-বাণিজ্য » ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন চলনবিলের শুটকি শ্রমিকেরা
১৪৯ বার পঠিত
রবিবার ● ৬ ডিসেম্বর ২০২০
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন চলনবিলের শুটকি শ্রমিকেরা

ছবি : সংবাদ সংক্রান্তমো. নূরুল ইসলাম,পাবনা জেলা প্রতিনিধি :: প্রতি বছর কার্তিক-অগ্রহায়ন মাসে চলনবিলের বাতাসে ভাসে শুটকি মাছের গন্ধ। ভাদ্র মাস থেকে সীমিত আকারে মাছ শুকানোর কাজ শুরু হয়। কার্তিক-অগ্রহায়ন মাসে পুরোদমে চলে মাছ শুকানোর কাজ। চলতি মৌসুমে চলনবিল এলাকার শুটকি শ্রমিকদের ব্যস্ততা শুরু হয়ে গেছে। সকাল থেকে রাত অবধি মাছ কেনা, ধোয়া, চাতালে শুকানো ও বাছাই করে পৃথক করার কাজ করছেন চলনবিল এলাকার শত-শত নারী ও পুরুষ শ্রমিক। চলনবিলের মাঝ দিয়ে নির্মিত হয়েছে বনপাড়া-হাটিকুমরুল মহাসড়ক। এ সড়ক পথে চলাচলের সময় মহিষলুটি এলাকা অতিক্রমকালে যে কারো নাকে ভেসে আসবে শুটকি মাছের গন্ধ। মহিষলুটি ছাড়াও চলনবিলের আত্রাই, চাটমোহর, ভাঙ্গুড়া, গুরুদাসপুর, সিংড়া, হালতী এলাকায় মাছ শুকানো হয়।
চলনবিল এলাকার উল্লেখযোগ্য ৪৮ টি বিল, ১৪ টি খাল ও ১১ টি নদীতে এক সময় প্রচুর পরিমানে কৈ, মাগুর, বাঁচা, রুই, কাতলা, মৃগেল, বাউশ, আইড়, রিটা, বাঘাইর, চিতল, ফলি, বোয়াল, পাবদা, টেংড়া, বাইম, শৈল, গজার, টাকি, নদই, শিং, খলিশা, পুটি, চিংড়ি, কাকলা, ফাতাশী, বাশপাতা, মৌসি, রায়াক, চ্যাং, চাঁদা, চেলা, চাপিলা, গাগর, ভূল, গুজ্যা, বৌমাছ পাওয়া যেত। জেলেরা বিভিন্ন ধরণের মাছ ধরার উপকরণের সাহায্যে মাছ ধরতো। তখন অভাব কি জিনিষ বুঝতোনা তারা। বর্ষাকালে মাছ ধরে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে পাঠিয়ে দিত। উদ্বৃত্ত মাছ শুটকি করতো। উত্তরাঞ্চলের সৈয়দপুর, নিলফামারীসহ দেশের বিভিন্ন মোকামে পাঠানো হতো শুটকি মাছ। কালের বিবর্তনে এসব মাছের অনেক প্রজাতিই এখন বিলুপ্তির পথে। মাছের প্রজাতি ও পরিমান কমে গেলেও এখনো এ এলাকার প্রায় এক’শ শুটকি ব্যবসায়ী এবং হাজার হাজার শুটকি শ্রমিক মাছ শুকানোর কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করেন।
নাটোরের বনপাড়া-সিরাজগঞ্জের হাটিকুমরুল সড়কের মহিষলুটি এলাকায় রাস্তার পাশের শুটকি চাতালে সম্প্রতি কথা হয় সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ার বিনায়েকপুর গ্রামের শুটকি ব্যবসায়ী রফিকুল ইসলামের সাথে। তিনি জানান, বর্তমান মহিষলুটি মাছের আড়তে কাচা পুটি মাছ ৪০ থেকে ৮০ টাকা, চাঁদা ২০ থেকে ২৫ টাকা, খলিশা ৪০ থেকে ৪৫ টাকা, বেলে ৮০ থেকে ৯০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। ৪০ কেজি কাঁচা মাছ শুকালে ১৩ কেজি শুটকি মাছ হয়। শুটকি মাছের মোকাম সৈয়দপুর, নীলফামারী, রংপুরে বর্তমান পুটি ১শ ৩০ থেকে ২’শ টাকা, চাদা ৮০ থেকে ৯০ টাকা, বেলে ৩’শ টাকা এবং খলিশা ১’শ ৪০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। চলতি মৌসুসের শুরু থেকে বৃষ্টি ও মোকামে দাম কম থাকায় বর্তমান শুটকি ব্যবসায়ীরা লোকসানে আছেন। শ্রমিকদের মজুরী প্রসঙ্গে তিনি জানান, বর্তমান পুরুষ শ্রমিকেরা ৩শ টাকা এবং নারী শ্রমিকেরা ১শ ৫০ টাকায় কাজ করছেন।
গুরুদাসপুরের শাপগাড়ী গ্রামের শুটকি ব্যবসায়ী নান্নু হোসেন বলেন, আমি প্রায় ২৫ বছর যাবত শুটকি মাছের ব্যবসা করে আসছি। ভারতে চলনবিল এলাকার পুটি মাছের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। নীলফামারী সৈয়দপুরের মোকামে মাছ পাঠাতে আমাদের অনেক টাকা খরচ পরে যায়। মাছ সংরক্ষণের সুবিধায় সীমিত আকারে লবন দেয়া হয়। বৃষ্টি ও করোনার প্রভাবে এ বছর এখন পর্যন্ত ব্যবসায়ীরা লোকসানে আছেন। ঘুরে দাড়ানোর চেষ্টা করছেন তারা।
সিরাজগঞ্জের সলঙ্গার সেকেন্দাসপুর গ্রামের শুটকি ব্যবসায়ী দেলোয়ার হোসেন জানান, কয়েকদিন আগের বৃষ্টিতে প্রায় এক লাখ টাকা লোকসান হয়েছে তার। মাছ পচে যাওয়ায় মাটিতে পুতে রাখতে হয়েছে। শুটকি মাছের ব্যবসা ভাগ্যের উপরে নির্ভর করে। চলনবিল এলাকায় প্রক্রিয়াজাত করা শুটকি সংরক্ষণের ব্যবস্থা না থাকায় এবং কাছাকাছি বড় শুটকির মোকাম না থাকায় আমরা ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছি।
এ ব্যাপারে চাটমোহরে কর্মরত সিনিয়র উপজেলা মৎস কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান বলেন, প্রতি বছর অক্টোবরের শেষ থেকে পুরো নভেম্বর মাসে চলনবিল এলাকায় প্রচুর মাছ ধরা পরে। বাজারে কাঁচা মাছের ভাল দাম থাকায় এখন অধিকাংশ মাছ বাইরে চলে যাচ্ছে। কিছু মাছ যাচ্ছে শুটকি চাতালে। চলনবিল কেন্দ্রিক শুটকি বিক্রয় কেন্দ্র ও সংরক্ষণাগাড় নির্মিত হলে এ এলাকার শুটকি ব্যবসায়ীরা লাভবান হবে।

হিজড়াদের হামলায় গৃহবধূ আহত : গ্রেফতার-৫

পাবনা :: পাবনার সুজানগরে চাঁদা না পেয়ে একটি সঙ্গবদ্ধ হিজড়ার দল রজিনা খাতুন (২৫) নামে এক গৃহবধূর ওপর হামলা চালিয়ে আহত করেছে।

গত শুক্রবার দুপুরে উপজেলার নারুহাটি গ্রামে এ হামলার ঘটনা ঘটে। আহত রজিনা ঐ গ্রামের হাফিজ শেখের স্ত্রী। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে পাবনা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় সুজানগর থানা পুলিশ ৫জন হিজড়াকে গ্রেপ্তার করেছে। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো উপজেলার নাজিরগঞ্জ জোয়ালভাঙ্গা গ্রামের বর্ণা (৪৫), মিম (২২), সোনালী (২৫), অন্তরা (২৪) ও নন্দি (২৬)।

সুজানগর থানা পুলিশ জানায়, ঘটনারদিন দুপুর আড়াইটার দিকে একটি সঙ্গবদ্ধ হিজড়ার দল উক্ত রজিনার কাছে গিয়ে চাঁদা দাবি করে। এ সময় রজিনার স্বামী বাড়ি না থাকায় সে চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানায়।

এতে হিজড়ার দল ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে বেধড়ক মারপিট করে। থানার অফিসার ইনচার্জ বদরুদ্দোজা বলেন, এ ঘটনায় রজিনার স্বামী উক্ত হাফিজ বাদী হয়ে থানায় মামলা করেছে। মামলার পরপরই অভিযুক্ত ৫হিজড়াকে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।



google.com, pub-4074757625375942, DIRECT, f08c47fec0942fa0

আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)