শিরোনাম:
●   সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদার করোনা পরীক্ষার নমুনা নেওয়া হয়নি ●   সাম্য, মানবিক মর্যাদা ও সামাজিক ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় দরকার মুক্তিযুদ্ধের সমতুল্য আরেকটি গণজাগরণ : সাইফুল হক ●   লালমনিরহাটে আওয়ামী লীগের দু’পক্ষের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় ●   চলাচলের রাস্তা কেটে ঘেরের পানি নিষ্কাশন : মানুষের চরম ভোগান্তি ●   গাইবান্ধায় আওয়ামীলীগ নেতার বাড়ী থেকে ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার ●   কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে আবারো ভেসে এল মৃত তিমি ●   রেডব্রিজ কাউন্সিল উপ নির্বাচন লক্সফোর্ড ওয়ার্ডে অহিদ উদ্দিন লিবডেম প্রার্থী ●   চিতলমারীতে পোস্ট ই-সেন্টার গুলোর কার্যক্রম বাক্সবন্দী ●   বিশ্বনাথে বরের স্বপ্ন ভেঙ্গে দিল প্রশাসন ●   অপহরণ করে মুক্তিপণ নেওয়ার অভিযোগে র‌্যাবের ৪ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ●   বিস্ফোরক আইনে ৪ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে কাদের মির্জা অনুসারীর মামলা ●   নিম্নমানের ইট দিয়ে হলদিয়া ইউপিতে সড়কের কাজ করার অভিযোগ ●   বাগেরহাটে গরম বাতাসে পুড়ল কৃষকের স্বপ্ন ●   বিশ্বনাথ থানায় বসছে এলএমজি পোস্ট ●   মিরসরাইয়ে দোকান পুড়ে ছাই : ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ●   কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে ভেসে এল বিশাল আকৃতির মৃত তিমি ●   রাঙামাটিতে সাংবাদিকের জায়গা জবরদখলে নেয়ার অভিযোগ ●   ১৪ এপ্রিল থেকে এক সপ্তাহের জন্য সর্বাত্মক লকডাউনের চিন্তা ●   গুমের শিকার হওয়া ইউপিডিএফ নেতা মাইকেল চাকমার সন্ধান ও ফিরিয়ে দেয়ার দাবি ●   হাটহাজারীতে সহিংসতা ঘটনায় গ্রেপ্তার ৪ জন কারাগারে ●   মওলানা রফিকুলের নামে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা ●   রাতের আধাঁরে ধান কেটে নিল প্রতিপক্ষের লোকজন ●   রাজস্থলীতে সীমান্ত সড়ক নির্মাণ শ্রমিকের লাশ উদ্ধার ●   ত্রিশালে ৫ মামলায় ৩৫শত টাকা অর্থদণ্ড ●   সুন্দরগঞ্জে ভূয়া ডিবি সদস্য গ্রেফতার ●   এসআই জাকিরুলের বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ ●   পাকিস্তান ফুটবল ফেডারেশনের ওপর ফিফার নিষেধাজ্ঞা ●   লিবারেল ডেমোক্র্যাটস প্রার্থী অহিদ উদ্দিনকে ভোট দেওয়ার জন্য বিনীত আবেদন ●   কুষ্টিয়া বিএডিসি অফিসের এডি মাহবুবুর এর অর্থ লোপাটের তথ্য ফাঁস : পর্ব -১ ●   করোনাকালে দাফন কাফনে ভরসাস্থল ‘শেষ বিদায়ের বন্ধু’
রাঙামাটি, রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ২৮ চৈত্র ১৪২৭


CHT Media24.com অবসান হোক বৈষম্যের
শুক্রবার ● ২২ জানুয়ারী ২০২১
প্রথম পাতা » জাতীয় » হে বাঙ্গালি জাতি কোথায় বঙ্গবন্ধুর মুক্তিযোদ্ধানীতি
প্রথম পাতা » জাতীয় » হে বাঙ্গালি জাতি কোথায় বঙ্গবন্ধুর মুক্তিযোদ্ধানীতি
১৪৭ বার পঠিত
শুক্রবার ● ২২ জানুয়ারী ২০২১
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

হে বাঙ্গালি জাতি কোথায় বঙ্গবন্ধুর মুক্তিযোদ্ধানীতি

ছবি: সংবাদ সংক্রান্তসিরাজী এম আর মোস্তাক, ঢাকা :: বাঙ্গালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে এ আবেদন। এ লেখার মূল লক্ষ্য- বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিচারণ। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও নীতি বর্জন করে তাঁর জন্মশতবার্ষিকী পালন ও স্বাধীনতার ৫০ বছরপুর্তি উদযাপন; সবই বৃথা ও গাছের শিকড় কেটে ডগায় পানি ঢালার মতন।
এবার মূল কথায় আসি। বঙ্গবন্ধুর মুক্তিযোদ্ধানীতি হলো- তাঁর মুখসৃত ভাষণ ও তদানুযায়ী গৃহীত শাসননীতি। ১৯৭১এ ৭মার্চের ভাষণসহ বহু বক্তব্যে বঙ্গবন্ধু সুস্পষ্টভাবে বলেছেন- সাড়ে সাত কোটি বীর বাঙ্গালি। ২৩মার্চ, ১৯৭১এ একটি কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু মুক্তিযুদ্ধের ডাক দেন এবং সুস্পষ্টভাবে সম্বোধন করেন- সাড়ে সাত কোটি বীর বাঙ্গালি। বহু বইতে আছে এবিষয়টি। এসকল বইয়ের পাতায় পাতায় বঙ্গবন্ধুর মুখে স্বাধীনতার ডাক শুনি। এভাবে স্বাধীনতাযুদ্ধের পূর্বে বঙ্গবন্ধু বহুবার উচ্চারণ করেছেন- সাড়ে সাত কোটি বীর বাঙ্গালি শব্দটি।
স্বাধীনতার পর ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারী, বঙ্গবন্ধু দেশে ফিরেই লাখো জনতার সমাবেশে সুস্পষ্ট ভাষায় সাড়ে সাত কোটি বীর বাঙ্গালির প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। তিনি নিজ মুখে ৩০লাখ শহীদ ও ২লাখ সম্ভ্রমহারা মা-বোনের সংখ্যা ঘোষণা করেন এবং তাদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান। এ সংখ্যাগুলো বঙ্গবন্ধু ছাড়া কে প্রথম বলেছেন? ভাষণটি শুনুন অনলাইনে–(https://www.youtube.com/watch?v=GVSx5fbYN9M)|
বঙ্গবন্ধু এ সংখ্যাগুলো শুধু ভাষণেই সীমাবদ্ধ রাখেননি, বাস্তবায়নও করেছেন। তিনি ৩০লাখ শহীদের পক্ষে ৭জনকে বীরশ্রেষ্ঠ খেতাব দিয়েছেন। যেন বাঙ্গালি জাতি এ ৩০লাখ শহীদকে শ্রেষ্ঠ বীরযোদ্ধা হিসেবে শ্রদ্ধা করেন। আর সাড়ে সাত কোটি বীর বাঙ্গালির পক্ষে ৬৬৯ জনকে বীরউত্তম (৬৮), বীরবিক্রম (১৭৫) ও বীরপ্রতীক (৪২৬) খেতাব দিয়েছেন। বঙ্গবন্ধু দেশের সবাইকে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে তাদের পক্ষে ৬৭৬ শহীদ ও গাজীকে খেতাব দিয়ে ঘোষিত সংখ্যা বাস্তবায়ন করেছেন। তিনি এ ৬৭৬ খেতাবধারী ব্যতিত মুক্তিযোদ্ধা ও ৩০লাখ শহীদের কোনো তালিকা করেননি। তাঁর দৃষ্টিতে, ১৯৭১এ এদেশের সবাই মুক্তিযোদ্ধা এবং তাদের পরিবারের সদস্যই শহীদ হয়েছেন। তাদের তালিকা ও সনদ নিস্প্রয়োজন। এটি বঙ্গবন্ধুর মুক্তিযোদ্ধানীতি। বঙ্গবন্ধু এ নীতি অবলম্বন ও খেতাব প্রদান করে মুক্তিযুদ্ধের সাংগঠনিক ভিত্তি রচনা করেছেন। বিশ্বজুড়ে বাংলাদেশকে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি লাভ করেছেন।
এ মুক্তিযোদ্ধানীতি বঙ্গবন্ধুকে স্বাধীনতার স্থপতি ও প্রকৃত রাষ্ট্রনায়ক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছে। এ নীতির উৎস হলো- সেনাবাহিনীর মেডিকেল কোর ও ইঞ্জিনিয়ারিং কোরের সদস্যগণ সরাসরি যুদ্ধ না করেই সৈনিক বা যোদ্ধার মর্যাদা পান। সেনাবাহিনীর ঝাড়–দার বা নিন্ম পদের ব্যক্তিরাও যুদ্ধে সম্পৃক্ত না থেকেই সৈনিক বিবেচিত হন। তেমনি ১৯৭১ সালে এদেশের সাড়ে সাত কোটি বাঙ্গালি মুক্তিযোদ্ধা হয়ে থাকবেন চিরদিন। এজন্য বঙ্গবন্ধুর সময়ে মুক্তিযোদ্ধা-অমুক্তিযোদ্ধা বিভাজন ছিলনা। তিনি খেতাবপ্রাপ্ত যোদ্ধাদেরও ভাতা বা বিশেষ সুবিধা দেননি। এমন কেউ কি আছেন, যিনি বঙ্গবন্ধুর সময়ে মুক্তিযোদ্ধা ভাতা গ্রহণ করেছেন?
আজ কোথায় বঙ্গবন্ধুর মুক্তিযোদ্ধানীতি এবং সাড়ে সাত কোটি বীর বাঙ্গালি, ৩০লাখ শহীদ ও ২লাখ সম্ভ্রমহারা মা-বোনের স্বীকৃতি? কারা, কিভাবে বঙ্গবন্ধুর মুক্তিযোদ্ধানীতি বিকৃত করেছে? কারা ভারতের লালবই থেকে মুক্তিযোদ্ধা তালিকা আমদানি করেছে? কারা মনগড়া তালিকা করে মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা ও কোটা পদ্ধতি চালু করেছে? এসব প্রশ্নে স্পষ্ট হবে, কারা বঙ্গবন্ধুর মুক্তিযোদ্ধানীতি ও ৩০লাখ শহীদের মুক্তিযোদ্ধা স্বীকৃতির বিরোধী?
বঙ্গবন্ধুর মুক্তিযোদ্ধানীতির ফলে যারা সুবিধা হারাবে, তারাই এর বিরোধী। তারা এ সুবিধার জন্য ৩০লাখ শহীদকে মুক্তিযোদ্ধা মানেন না। তারা বলেন, ৩০লাখ শহীদ যুদ্ধ না করেই মারা গেছেন। শুধুমাত্র তালিকাভুক্ত ২লাখ মুক্তিযোদ্ধাই এদেশ স্বাধীন করেছেন। এভাবে ২লাখ তালিকাভুক্ত মুক্তিযোদ্ধার বিপরীতে বঙ্গবন্ধুর ৩০লাখ শহীদের ঘোষণা, প্রশ্নবিদ্ধ করেছে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা। পৃথিবীর কোনো যুদ্ধে শহীদগণ কি যোদ্ধা স্বীকৃতি বঞ্চিত হয়েছে? বাংলাদেশের স্বাধীনতাযুদ্ধে ৩০লাখ শহীদ অথচ ২লাখ মুক্তিযোদ্ধা তালিকাভুক্ত হয়েছে। তালিকাভুক্ত মুক্তিযোদ্ধাগণ ভাতা ও তাদের সন্তান-সন্ততি কোটাসুবিধা ভোগ করছে। এতে মুক্তিযুদ্ধের নব চেতনা উদ্ভব হয়েছে। দেশে মুক্তিযোদ্ধা-অমুক্তিযোদ্ধা বিভাজন সৃষ্টি হয়েছে। এর একমাত্র সমাধান- বঙ্গবন্ধুর মুক্তিযোদ্ধানীতি বাস্তবায়ন।
বঙ্গবন্ধুর জন্ম, রাজনীতি ও সংগ্রামী জীবনের মূলদর্শন, পাকিস্তানের দুঃশাসন থেকে মুক্তি ও স্বাধীনতা অর্জন। আজ তাঁর মুক্তিযোদ্ধানীতি নেই বলেই, এ স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সকল বৈষম্য ও বিভাজনের কারণ। এমতাবস্থায় কিসের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার ৫০ বছরপুর্তি পালন? বঙ্গবন্ধু কন্যাসহ বাঙ্গালী জাতির কাছে আবেদন- সবার আগে হোক, বঙ্গবন্ধুর মুক্তিযোদ্ধানীতি বাস্তবায়ন।



google.com, pub-4074757625375942, DIRECT, f08c47fec0942fa0

জাতীয় এর আরও খবর

সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদার করোনা পরীক্ষার নমুনা নেওয়া হয়নি সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদার করোনা পরীক্ষার নমুনা নেওয়া হয়নি
হেফাজত একা নয়, তাণ্ডবে বিএনপি-জামায়াতও জড়িত : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হেফাজত একা নয়, তাণ্ডবে বিএনপি-জামায়াতও জড়িত : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
শিল্প কলকারখানা লকডাউনে খোলা থাকবে : প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ শিল্প কলকারখানা লকডাউনে খোলা থাকবে : প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ
লকডাউনে অফিস-মার্কেট-আদালত বন্ধ থাকবে লকডাউনে অফিস-মার্কেট-আদালত বন্ধ থাকবে
জাতীয় সংসদে  বিএনপি, জামায়াত, হেফাজতের  বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জাতীয় সংসদে বিএনপি, জামায়াত, হেফাজতের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি
দমনমূলক পরিবেশই গুজবের বসন্ত দমনমূলক পরিবেশই গুজবের বসন্ত
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন নিয়ে মার্কিন প্রতিবেদনে বাংলাদেশের সমালোচনা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন নিয়ে মার্কিন প্রতিবেদনে বাংলাদেশের সমালোচনা
করোনা : একদিনে দেশে রেকর্ড শনাক্ত ৫৩৫৮,মৃত্যু-৫২ করোনা : একদিনে দেশে রেকর্ড শনাক্ত ৫৩৫৮,মৃত্যু-৫২
ডক্টর, ডাক্তার, ব্যারিস্টার, আইনজীবী নামের অংশ নয় : হাই কোর্ট ডক্টর, ডাক্তার, ব্যারিস্টার, আইনজীবী নামের অংশ নয় : হাই কোর্ট
করোনাকালে বিচারক-আইনজীবীদের কোট-গাউন পরতে হবে না করোনাকালে বিচারক-আইনজীবীদের কোট-গাউন পরতে হবে না

আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)