শিরোনাম:
●   সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদার করোনা পরীক্ষার নমুনা নেওয়া হয়নি ●   সাম্য, মানবিক মর্যাদা ও সামাজিক ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় দরকার মুক্তিযুদ্ধের সমতুল্য আরেকটি গণজাগরণ : সাইফুল হক ●   লালমনিরহাটে আওয়ামী লীগের দু’পক্ষের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় ●   চলাচলের রাস্তা কেটে ঘেরের পানি নিষ্কাশন : মানুষের চরম ভোগান্তি ●   গাইবান্ধায় আওয়ামীলীগ নেতার বাড়ী থেকে ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার ●   কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে আবারো ভেসে এল মৃত তিমি ●   রেডব্রিজ কাউন্সিল উপ নির্বাচন লক্সফোর্ড ওয়ার্ডে অহিদ উদ্দিন লিবডেম প্রার্থী ●   চিতলমারীতে পোস্ট ই-সেন্টার গুলোর কার্যক্রম বাক্সবন্দী ●   বিশ্বনাথে বরের স্বপ্ন ভেঙ্গে দিল প্রশাসন ●   অপহরণ করে মুক্তিপণ নেওয়ার অভিযোগে র‌্যাবের ৪ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ●   বিস্ফোরক আইনে ৪ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে কাদের মির্জা অনুসারীর মামলা ●   নিম্নমানের ইট দিয়ে হলদিয়া ইউপিতে সড়কের কাজ করার অভিযোগ ●   বাগেরহাটে গরম বাতাসে পুড়ল কৃষকের স্বপ্ন ●   বিশ্বনাথ থানায় বসছে এলএমজি পোস্ট ●   মিরসরাইয়ে দোকান পুড়ে ছাই : ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ●   কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে ভেসে এল বিশাল আকৃতির মৃত তিমি ●   রাঙামাটিতে সাংবাদিকের জায়গা জবরদখলে নেয়ার অভিযোগ ●   ১৪ এপ্রিল থেকে এক সপ্তাহের জন্য সর্বাত্মক লকডাউনের চিন্তা ●   গুমের শিকার হওয়া ইউপিডিএফ নেতা মাইকেল চাকমার সন্ধান ও ফিরিয়ে দেয়ার দাবি ●   হাটহাজারীতে সহিংসতা ঘটনায় গ্রেপ্তার ৪ জন কারাগারে ●   মওলানা রফিকুলের নামে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা ●   রাতের আধাঁরে ধান কেটে নিল প্রতিপক্ষের লোকজন ●   রাজস্থলীতে সীমান্ত সড়ক নির্মাণ শ্রমিকের লাশ উদ্ধার ●   ত্রিশালে ৫ মামলায় ৩৫শত টাকা অর্থদণ্ড ●   সুন্দরগঞ্জে ভূয়া ডিবি সদস্য গ্রেফতার ●   এসআই জাকিরুলের বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ ●   পাকিস্তান ফুটবল ফেডারেশনের ওপর ফিফার নিষেধাজ্ঞা ●   লিবারেল ডেমোক্র্যাটস প্রার্থী অহিদ উদ্দিনকে ভোট দেওয়ার জন্য বিনীত আবেদন ●   কুষ্টিয়া বিএডিসি অফিসের এডি মাহবুবুর এর অর্থ লোপাটের তথ্য ফাঁস : পর্ব -১ ●   করোনাকালে দাফন কাফনে ভরসাস্থল ‘শেষ বিদায়ের বন্ধু’
রাঙামাটি, রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ২৮ চৈত্র ১৪২৭


CHT Media24.com অবসান হোক বৈষম্যের
শুক্রবার ● ১২ মার্চ ২০২১
প্রথম পাতা » কৃষি » পেঁয়াজের বাম্পার ফলনে কৃষকের মুখে হাসি
প্রথম পাতা » কৃষি » পেঁয়াজের বাম্পার ফলনে কৃষকের মুখে হাসি
৮৯ বার পঠিত
শুক্রবার ● ১২ মার্চ ২০২১
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

পেঁয়াজের বাম্পার ফলনে কৃষকের মুখে হাসি

ছবি : সংবাদ সংক্রান্ত জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি :: ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার পাইকপাড় গ্রামে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে পেঁয়াজ। ক্ষেতেও রয়েছে, যা কৃষক বাড়িতে এনে স্তুপ করে রাখছেন বিক্রির আশায়। পেঁয়াজ সংরক্ষণের কোন ব্যবস্থা না থাকায় অল্প টাকায় বিক্রি করতে বাধ্য হন উপজেলার কৃষকরা। স্থানীয়রা বলছেন, এ উপজেলায় পেঁয়াজের প্রচুর চাষ হয়ে থাকে। সবচেয়ে বেশি চাষ হয় পাইকপাড়া গ্রামে। কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, শৈলকুপা উপজেলায় চাষযোগ্য জমি আছে ২৮ হাজার ৫শ হেক্টর। তারমধ্যে এ বছর পেঁয়াজের চাষ হয়েছে ৭হাজার ৮শ ৯০ হেক্টর জমিতে। এরমধ্যে শুধু পাইকপাড়া গ্রামে চাষ হয়েছে ৩৫০ হেক্টর জমিতে। বারি-১, লাল তীর, লাল তীর কিংসহ বেশ কয়েকটি জাতের পেঁয়াজ বেশি চাষ হচ্ছে। এবছর অনেক কৃষক সুখসাগর জাতও চাষ করেছেন। পাইকপাড়া গ্রামের কৃষক রবিউল ইসলামের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, বাড়ির বাইরে মেয়েরা পেঁয়াজ থেকে গাছ কেটে আলাদা করছেন। বাড়ির মধ্যে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে পেঁয়াজ। ঘর-বারান্দা কোথাও একটু খালি জায়গা নেই। শোবার ঘরের খাটের নিচেও পেঁয়াজ। তিনি জানান, এবছর ৮ বিঘা জমিতে পেঁয়াজের চাষ করেছেন তিনি। এসব জমিতে চাষ করেছেন হাইব্রীড লাল তীরকিং জাত। যার মধ্যে অর্ধেক জমির পেঁয়াজ বাড়িতে নিয়ে এসেছেন। এখনও মাঠে পেঁয়াজ রয়েছে।তিনি আরও জানান, প্রতি বিঘায় সব মিলিয়ে ৩৫ থেকে ৪৫ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। একবিঘায় (৪০ শতাংশ) ১শ ২০ মণ পেঁয়াজ পাচ্ছেন। যা ১৪ শত টাকা প্রতি মণ দরে বিক্রি করে ১ লক্ষ ৬৮ হাজার টাকা ঘরে আসবে। চর সোন্দহ গ্রামের কৃষক আমিরুল ইসলাম জানান, তিনিও তার জমিতে এ পেঁয়াজ চাষ করেছেন। ক্ষেত থেকে ৬শ মণ পেঁয়াজ পাবেন বলে তিনি আশা করছেন। আমিরুল ইসলাম অরো জানান, সরকারিভাবে এ উপজেলায় পেঁয়াজ সংরক্ষণের কোন ব্যবস্থা নেই। যে কারণে কৃষকরা পেঁয়াজ সংরক্ষণ করতে পারেন না। তাই অনেক সময় সঠিক মূল্য থেকে বঞ্চিত হন। শৈলকুপার পেঁয়াজ ব্যাবসায়ী রেজাউল বিশ্বাস জানান শৈলকুপা বাজার থেকে ঢাকার কারওয়ান বাজার, ভৈরব, সিলেট, চট্রগাম, খুলনা, বরিশাল সহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে পেঁয়াজ যায়। দেশের চাহিদার বড় একটি অংশের যোগান শৈলকুপা থেকে হয়ে থাকে। পাইকপাড়া ব্লকের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা কোরবান আলী জানান, এ ব্লকে ৭ হাজার হেক্টর চাষযোগ্য জমি আছে। আর ১৫৬০টি কৃষি পরিবার রয়েছে। এবছর সাড়ে ৪ হাজার হেক্টর জমিতে পেঁয়াজ চাষ হয়েছে। কম-বেশি প্রায় সব পরিবারে রয়েছে পেঁয়াজ। চাষটি ক্রমেই বাড়ছে বলে তিনি জানান। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আক্রাম হোসেন জানান, এ উপজেলায় পেঁয়াজের চাষ বাড়ছে। গত ১০ বছরে এ চাষ বেড়েছে। এবার উপজেলায় পেঁয়াজের ফলন ভালো হয়েছে। তবে পেঁয়াজের দাম কিছুটা কম। এখানে একটি কোল্ড স্টোর জরুরি।



google.com, pub-4074757625375942, DIRECT, f08c47fec0942fa0

আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)