শিরোনাম:
●   রাষ্ট্রকে হাইজ্যাক করে আওয়ামী লীগ এখন মানুষের ভোটের অধিকারও হাইজ্যাক করেছে : ড. কামাল হোসেন ●   ঝিনাইদহে ঐহিত্যবাহী গরুর গাড়ীর দৌড় প্রতিযোগিতা ●   ঝিনাইদহে বাঁধাকপি এখন গোখাদ্য ●   বিশ্বনাথে ফ্রি চিকিৎসা সেবা প্রদান ●   বম জাতিগোষ্ঠীর খ্রিস্টান ধর্ম গ্রহণের শতবর্ষ পূর্তিতে তিন দিন ব্যাপী বর্ণিল আয়োজন ●   নিরাপদ উপকরন ছাড়াই পরিচ্ছন্নতার কাজে হরিজন শিশুরা : বাড়ছে স্বাস্থ্য ঝুঁকি ●   খাগড়াছড়িতে গোপাল কৃষ্ণ ত্রিপুরা’র মৃত্যুতে স্মরণসভা ●   মধু সংগ্রহে ব্যস্ত আক্কেলপুরে মৌ চাষিরা ●   ঐতিহাসিক মজিদবাড়ীয়া শাহী মসজিদ শ্রীহীন হয়ে পড়েছে সংস্কারের অভাবে ●   আরব আমিরাতের সিভিল ডিফেন্স থেকে সম্মাননা পেলেন বাংলাদেশের ফারুক ●   নবীগঞ্জের একাধিক মামলার আসামী ডাকাত সেলিম র‌্যাবের জালে বন্ধি ●   অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবির অভিযোগে আটক-৩ : অপহৃত উদ্ধার ●   গাইবান্ধা-৩ আসনের নির্বাচন বিতর্কিত না হয় সে ব্যাপারে সকলকে সতর্ক থাকতে হবে : ইসি সচিব ●   সাংবাদিক হাফিজুলের মহৎ কাজ : কুড়িয়ে পাওয়া টাকা হস্তান্তর ●   ছোটহরিণায় ভারতীয় মদসহ ইয়াবা উদ্ধার ●   পাহাড়ে শীতার্ত মানুষের মাঝে উষ্ণতা ছড়িয়ে দেবার চেষ্টা করছি : লেঃ কর্নেল আতিক চৌধুরি ●   মহালছড়ি উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান পদে আলোচনায় জিয়া ●   বিশ্বনাথে ভেজাল বিরোধী অভিযানে ৯ ব্যবসায়ীকে জরিমানা ●   মানবপাচার মামলা তুলে না নেওয়ায় বাদীকে কুপিয়ে জখম ●   নোয়াখালীতে বিএনপি’র ২১৮ নেতাকর্মী কারাগারে ●   রুমা উপজেলা চেয়ারম্যান পদে সম্ভাব্য প্রার্থী বাসিংথুয়াই মারমার প্রস্তুতি ●   গাইবান্ধার বেগুন যাচ্ছে জেলার বাহিরে ●   নবীগঞ্জে ঐতিহ্যবাহী ঘোড় দৌড় প্রতিযোগিতা ●   দুর্নীতিরোধেই সরকারের অবস্থান জিরো টলারেন্স ●   বান্দরবা‌নে সনাতন ধর্মাবলম্বী‌দের উত্তরায়ন সংক্রা‌ন্তি উদযাপন ●   মহেশপুরে চাষিদের আগ্রহ বাড়ছে চীনা বাদাম চাষে ●   ছলিমপুর ভুমি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অনিয়ম দূর্নীতির অভিযোগ ●   গাইবান্ধায় রোটা ভাইরাসে আক্রান্তের ঝুঁকিতে ৯০% শিশু ●   গোলাপগঞ্জ উপজেলা নির্বাচনে প্রার্থী হচ্ছেন সামছুল ইসলাম লস্কর ●   একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৩০০ আসনের মধ্যে জাল ভোট পড়েছে ৮২ শতাংশ : টিআইবি
রাঙামাটি, রবিবার, ২০ জানুয়ারী ২০১৯, ৭ মাঘ ১৪২৫


CHT Media24.com অবসান হোক বৈষম্যের
শনিবার ● ৫ জানুয়ারী ২০১৯
প্রথম পাতা » ঢাকা » মাদকের চেয়ে ধর্ষণ নিকৃষ্ট
প্রথম পাতা » ঢাকা » মাদকের চেয়ে ধর্ষণ নিকৃষ্ট
৫৩ বার পঠিত
শনিবার ● ৫ জানুয়ারী ২০১৯
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

মাদকের চেয়ে ধর্ষণ নিকৃষ্ট

---সিরাজী এম আর মোস্তাক, ঢাকা :: মাদক কারবার ও ধর্ষণ দুটোই নিকৃষ্ট অপরাধকর্ম। মাদকে ব্যক্তি নিজেই ক্ষতিগ্রস্থ হয়। ধর্ষণে শুধু ধর্ষিতা নয়; নারী, সমাজ ও দেশ ক্ষতিগ্রস্থ হয়। মাদকে কতিপয় রোগের প্রতিষেধক রয়েছে, ধর্ষণে তা নেই। ধর্ষণ শুধুই অপরাধকর্ম। সুতরাং মাদকের চেয়ে ধর্ষণ নিকৃষ্ট ও ঘৃণ্য।
সম্প্রতি বাংলাদেশে মাদক বিরোধী অভিযানে অসংখ্য নাগরিক ক্রসফায়ারে নিহত হয়েছে। টেকনাফের পৌর কাউন্সিলর একরাম হত্যাকান্ড ভাইরাল হয়েছে। সিরাজগঞ্জ জেলায় কামারখন্দে আসান আলীকে তারাবীহ নামাজ শেষে তুলে নিয়ে ক্রসফায়ার দেয়া হয়েছে। ক্রসফায়ারের ২বছর আগেই সে মাদক কারবারি ছেড়ে দিয়েছিল। এভাবে পূর্বে কখনো মাদক মামলায় সংল্লিষ্ট থাকায়, বহু ব্যক্তি নির্মম ক্রসফায়ারের শিকার হয়েছে। হত্যাকান্ডের শিকার পরিবারগুলো মানবেতর জীবন যাপন করছে। তাদের কষ্ট দেখে পাষন্ড হৃদয়ও বিগলিত হয়। মাদক বিরোধী অভিযানের নামে এ নির্মমতা দেখে জাতি হতবাক।
মাদকের চেয়ে ধর্ষণ নিকৃষ্ট। মাদকে পরিণতি ক্রসফায়ার হলে, ধর্ষণে প্রকাশ্যে ফাঁসি বা আরো দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রযোজ্য। ধর্ষণের শাস্তি অবৈধ যৌনকর্ম তথা যেনার চেয়ে গুরুতর। পবিত্র কোরআনে যেনা একটি নিকৃষ্ট কর্ম হিসেবে, এতে কঠিন শাস্তি বর্ণিত হয়েছে। বিবাহিত নারী বা পুরুষ যেনায় লিপ্ত হলে শাস্তি- পাথর মেরে হত্যা করা। অবিবাহিতদের ক্ষেত্রে একশ চাবুক মারা। ধর্ষণের শাস্তি আরো কড়া। সম্প্রতি নোয়াখালী জেলায় সুবর্ণচরে ধানের শীষে ভোট দেয়ার অভিযোগে দুর্বৃত্তরা ৪সন্তানের এক মাকে ধর্ষণ করেছে। এ জঘন্য কর্মকান্ড বিবেকে নাড়া দিয়েছে। সরকার মাদক বিরোধী অভিযানে নির্বিচার ক্রসফায়ার দিলেও চিহ্নিত ধর্ষকদের এখনো জীবিত রেখেছে এবং অনেককে আটক করেনি। এর চেয়ে লজ্জা ও ব্যর্থতা আর নেই।
নোয়াখালীর সুবর্ণচরে নির্বাচন পরবর্তী নির্লজ্জ ধর্ষণের ঘটনাটি দেশ-বিদেশে ভাইরাল হয়েছে। জনগণ ক্রমে প্রতিবাদমূখর হচ্ছে। সরকার ধর্ষকদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি না দিলে, এ প্রতিবাদ আরো তীব্র হবে। কান টানলে মাথা আসার মতো, নির্বাচনও বাতিল হতে পারে। বিষয়টি খুবই স্পর্শকাতর। কিছুদিন আগে একজন নারী সাংবাদিককে শুধু মুখে চরিত্রহীন বলাতেই ব্যরিষ্টার মঈনুল মামলা, আটক, আদালতে হেনস্থার শিকার ও চরমভাবে লান্থিত হয়েছেন। (অথচ চরিত্রহীন শব্দটি পুংলিঙ্গবাচক। এটি মাসুদা ভাট্টির ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়। তার ক্ষেত্রে চরিত্রহীনা শব্দ প্রযোজ্য)। এ ঘটনা থেকে শিক্ষা নেয়া উচিত। ধর্ষণের ঘটনা ভাইরাল হওয়ার পরও সরকার অপরাধীদের শাস্তি না দিয়ে শুধু মুখে বলছে- অপরাধী যেই হোক, ছাড় পাবেনা। জনগণ এ প্রহসন মানেনা। জনগণ ধর্ষকদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি কার্যকর করে প্রমাণ করবে- মাদকের চেয়ে ধর্ষণ নিকৃষ্ট।



আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)