শিরোনাম:
●   কুষ্টিয়া কন্দর্পদিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে নিয়োগ বানিজ্যের অভিযোগ ●   রাবিপ্রবি এর উপাচার্য ড. সেলিনার বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন ●   আজ রামু ও উখিয়ার বৌদ্ধ পল্লীতে হামলার ১০ বছর পূর্ণ হয়েছে : বিচারকাজ শুরু হয়নি ●   একই পরিবারে সরকারী তিনটি ঘর নিয়ে হৈ চৈ ●   আধুনিক বাংলাদেশ গড়ার রূপকার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা : পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর ●   ●   বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির দশম কংগ্রেসের লোগো উন্মোচন ●   সিলেটে এডভোকেট জামানের উপর হামলা ●   চুয়েটে চারটি উন্নয়ন কাজের ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন ●   জমি বেদখলের ষড়যন্ত্র বন্ধের দাবিতে বিভিন্ন স্থানে ইউপিডিএফের বিক্ষোভ ●   জমি বেদখলের প্রতিবাদে দীঘিনালায় ইউপিডিএফের বিক্ষোভ ●   আগামীকাল বিশ্ব হার্ট দিবস ●   আত্রাইয়ে বিশ্ব পর্যটন দিবস পালন ●   গাবতলীতে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অনিয়মের তদন্ত শুরু ●   দেখা মিলেছে চার পা বিশিষ্ট মোরগ ●   নিয়োগ বাণিজ্যে কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ ●   জামাই শশুড়কে হত্যা করে অন্যকে ফাঁসানোর চেষ্টা ●   ঈশ্বরগঞ্জে ভ্রাম্যমান আদলতে জরিমানা ●   ঝিনাইদহ জেলা পরিষদ নির্বাচনী লড়াই জমে উঠেছে ●   ভূমি বেদখল বন্ধের দাবিতে বিভিন্ন স্থানে ইউপিডিএফের বিক্ষোভ ●   মিরসরাইয়ে ট্রেনে কাটা পড়ে গৃহকর্ত্রীর মৃত্যু ●   খাগড়াছড়িতে পানিতে ডুবে ২শিশুর মৃত্যু ●   বিএনপি’র পক্ষ থেকে বিশ্বনাথ পৌর নির্বাচন বর্জনের আহ্বান ●   ওমানে নারী ক্রিকেট দলের অধিনায়ক রাউজানের হেয়াম ●   রাঙামাটিতে জেলা উন্নয়ন কমিটির সভা ●   ঝিনাইদহে এক প্রধান শিক্ষকের রহস্যজনক মৃত্যু ●   মৃৎশিল্পীর রঙ তুলির আঁচড়ে মূর্ত হয়ে উঠছে দেবী দুর্গার রুপ ●   রাউজানে কেউচিয়া খাল ভরাট : চাষাবাদে দুর্ভোগ ●   নবীগঞ্জে ৯৪টি মন্ডপে শারদীয় দূর্গাপুজার প্রস্তুতি ●   বাবার লাশ রেখে এসএসসি পরীক্ষা দিলেন মাসুদা
রাঙামাটি, শনিবার, ১ অক্টোবর ২০২২, ১৬ আশ্বিন ১৪২৯



CHT Media24.com অবসান হোক বৈষম্যের
বুধবার ● ৩০ জুন ২০২১
প্রথম পাতা » জাতীয় » সাঁওতাল বিদ্রোহের ১৬৬ বছর : সিধু-কানু-চাঁদ-ভৈরব-ফুলমনিসহ সকল শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা
প্রথম পাতা » জাতীয় » সাঁওতাল বিদ্রোহের ১৬৬ বছর : সিধু-কানু-চাঁদ-ভৈরব-ফুলমনিসহ সকল শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা
৮১৫ বার পঠিত
বুধবার ● ৩০ জুন ২০২১
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

সাঁওতাল বিদ্রোহের ১৬৬ বছর : সিধু-কানু-চাঁদ-ভৈরব-ফুলমনিসহ সকল শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা

ছবি : সংগৃহীতপ্রদীপ মার্ডী :: স্পর্ধার ১৬৬ বছর। আজ ঔপনিবেশিক বিট্রিশ শাসকদের উৎখাতে ঐতিহাসিক “সান্তাল হুল বা বিদ্রোহ” এর ১৬৬ তম বার্ষিকীতে, বিদ্রোহের জন নায়ক সিধু মুরমু, কানু মুরমু, ফুলমনি সহ লড়াইয়ে শহীদ সকল সূর্য সন্তানদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা।
১৮৫৫ সালের সান্তাল বিদ্রোহ উপমহাদেশীয়দের স্ব-শাসন প্রতিষ্ঠার প্রথমতম বিদ্রোহ না হলেও একটি ধারাবাহিক সংগ্রামের অংশ বটে। এর পূর্বে ১৭৮১-৮৪ সালে শহীদ তিলকা মাঝির নেতৃত্বে ছোটনাগপুর, ভাগলপুর, দামিন-কো অঞ্চলের সান্তালসহ অনান্য আদিবাসী জনগণ বিট্রিশ শাসনের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করেছিলো যা ‘খেরওয়ার বিদ্রোহ’ নামে পরিচিত। এটা বললে অত্যুক্তি হবে না যে সিধু-কানু খেরওয়ার বিদ্রোহের পুরোধা মহান তিলকা মাঝির অসমাপ্ত সংগ্রামকে এগিয়ে নিতেই সর্বগ্রাসী বিট্রিশ শাসনের বিরুদ্ধে গর্জে উঠেছিলো যা একপ্রকার ঐতিহাসিক দায়বোধের প্রকাশও বটে। সান্তাল বিদ্রোহের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্য হচ্ছে এটি কর্মসূচি হিসেবে মুন্ডা বা অনান্য বিদ্রোহের মতো কোন ধর্মীয় সংস্কার কর্মসূচিকে সামনে রাখে নি বরং বিদ্রোহের আকাঙখা খেরওয়ার বিদ্রোহের মতোই অতিশয় বৈষয়িক ও বস্তুগত বিষয় ছিলো।
এই বিদ্রোহের নেতা সিধু ও কানু জনগণের সামনে নিজেদের কোন দেবতার প্রতিভূ হিসেবে ঘোষণা করেন নি আবার কোন স্বপ্নে আদিষ্ট বাণীও আওড়ান নি। বর্তমান সময়ে অনেক ঐতিহাসিক ১৮৫৫ সালের ‘সান্তাল হুল’কে ধর্মীয় সংস্কার আন্দোলন হিসেবে চিহ্নিত করে বিট্রিশ শাসন বিরোধীতার দিকটা খাটো করে দেখাতে চান। আসলে তৎকালীন ব্রিটিশ শাসকদের লিখিত পান্ডুলিপি থেকেই এটা পরিষ্কার হয় সান্তাল হুল কোন ধর্মীয় সংস্কার আন্দোলন ছিলো না। বিদ্রোহের দাবি ছিলো জলের মতো পরিষ্কার ‘আমাদের ভূমি, আমাদের কর্তৃত্ব’।
মূলত ছোট নাগপুর, ভাগলপুর, বীরভূম, ভগনাদিহি, দামিন-কো ইত্যাদি অঞ্চলের ভূমি ও বনাঞ্চলের উপর আদিবাসীদের চিরাচরিত সার্বভৌম অধিকার খর্ব করে বিট্রিশদের অর্পিত খাজনা ও তা আদায়ে বহিরাগত মহাজন-জমিদারদের আদিবাসী জনগণের উপর বর্বরোচিত অত্যাচারই বিদ্রোহের প্রেক্ষাপট তৈরী করেছে। এখানে বলে রাখা ভালো বিট্রিশ আগমনের পূর্বে মুঘল শাসকদের ছোট নাগপুরসহ উল্লিখিত আদিবাসী অধ্যুষিত অঞ্চলে তেমন কোন দৃঢ় কর্তৃত্ব ছিলো না। তাই এ অঞ্চলে বসবাসকারী আদিবাসীরা দীর্ঘকাল ধরেই একপ্রকার স্বাধীন জীবনাচারণের মধ্য দিয়ে বেড়ে উঠেছিলো। সেখানে হঠাৎ উদ্ভুত বিট্রিশ কর্তৃত্ব এবং অ-আদিবাসী জমিদার-মহাজনের দৌরাত্ম মূলত আদিবাসীদের ক্ষোভকে চরমে তোলে।
১৮৫৫ সালের সান্তাল বিদ্রোহের সবচেয়ে জরুরি দিক হলো এর রাজনৈতিক চরিত্র যেখানে সিধু-কানু’র নেতৃত্বে আদিবাসী জনগণ বিট্রিশ শাসক এবং তাদের অনুচর স্থানীয় জমিদার ও মহাজনদের বিতাড়িত করার মাধ্যমে স্ব-শাসন প্রতিষ্ঠায় ব্রত হয়েছিলেন। সান্তাল বিদ্রোহের এই ক্ষুরধার উদ্দেশ্যই পরবর্তীতে কোন বিদ্রোহী নেতাকে বাঁচিয়ে না রাখার অনুঘটক হিসেবে কাজ করেছে। কারণ বিট্রিশরা ভয় পেয়েছিলো, তিলকা মাঝি’র পরেও সিধু-কানু যেভাবে মাতৃভূমিকে বর্হিশত্রু মুক্ত করতে যে ঐতিহাসিক দায়বোধের পরিচয় দিয়েছে তা সংক্রামক হয়ে উঠলে তাদের রাজত্ব খুব বেশিদিন টিকবে না।
জানি উপসংহার টানার জন্য এই আলোচনা যথেষ্ট নয় তবে এটা পরিষ্কার যে, সান্তাল বিদ্রোহ নিছক একটি বুনো ক্ষোভ নয় বরং উপমহাদেশের প্রথমতম স্বাধীনতা সংগ্রামের একটি। জাতিগত বৈচিত্রতার এই পূণ্য ভূমিতে সকল জাতির সংগ্রাম যোগ্য মর্যাদা ও স্বীকৃতি পাক এবং উপমহাদেশীয়রা নিজেদের সূর্য সন্তানদের চিনতে শিখুক এই কামনায় করি।





google.com, pub-4074757625375942, DIRECT, f08c47fec0942fa0

জাতীয় এর আরও খবর

আধুনিক বাংলাদেশ গড়ার রূপকার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা : পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর আধুনিক বাংলাদেশ গড়ার রূপকার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা : পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর
আগামীকাল বিশ্ব হার্ট দিবস আগামীকাল বিশ্ব হার্ট দিবস
রোহিঙ্গাদের মোবাইল সিম প্রদানের সিদ্ধান্ত আত্মঘাতী : গোটা বাংলাদেশ বড় হুমকিতে পড়বে রোহিঙ্গাদের মোবাইল সিম প্রদানের সিদ্ধান্ত আত্মঘাতী : গোটা বাংলাদেশ বড় হুমকিতে পড়বে
সাফ নারী ফুটবল খেলায় বাংলাদেশ নারী ফুটবল দলের সাফল্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রীর অভিনন্দন সাফ নারী ফুটবল খেলায় বাংলাদেশ নারী ফুটবল দলের সাফল্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রীর অভিনন্দন
ইসি সাত হাজার কোটি টাকা ব্যয় করে  বিতর্কিত ইভিএম  কেনার উদ্যোগ জাতীয় অপচয় : সাইফুল হক ইসি সাত হাজার কোটি টাকা ব্যয় করে বিতর্কিত ইভিএম কেনার উদ্যোগ জাতীয় অপচয় : সাইফুল হক
সাবেক নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার আর নেই : বিভিন্ন মহলের শোক সাবেক নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার আর নেই : বিভিন্ন মহলের শোক
স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের আইন শক্তিশালীকরণের উদ্যোগ সময়োপযোগী স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের আইন শক্তিশালীকরণের উদ্যোগ সময়োপযোগী
রোগী প্রতি দশ ডলারেরও কমে সম্ভব উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ রোগী প্রতি দশ ডলারেরও কমে সম্ভব উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ
দেশে  জনসংখ্যা ১৬ কোটি ৫১ লাখ ৫৮ হাজার ৬১৬ জন : পুরুষের চেয়ে নারীর সংখ্যা বেশী দেশে জনসংখ্যা ১৬ কোটি ৫১ লাখ ৫৮ হাজার ৬১৬ জন : পুরুষের চেয়ে নারীর সংখ্যা বেশী
উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকি কমাতে নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করতে হবে উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকি কমাতে নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করতে হবে

আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)