শিরোনাম:
●   শ্রমজীবীদের আর্মি রেটে রেশন ও ঈদের আগে শ্রমিকদের বেতন-বোনাস প্রদানের দাবি জানিয়েছে বাম জোট ●   মিরসরাইয়ে ব্ল্যাক বেঙ্গল জাতের ছাগল বিতরণ ●   সুমেল ও দয়াল হত্যার ঘটনাস্থল পরিদর্শনে সিলেটের ডিআইজি ●   গাবতলীতে গম ও বোরো ধান সংগ্রহ উদ্ধোধন ●   সুন্দরবনে আবারো আগুন : তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন ●   প্রবাসীর স্ত্রীকে জবাই করে হত্যাচেষ্টা ●   স্বাস্থ্যবিধি মান্যকারীদেরকে শুভেচ্ছা জানালেন পুলিশ ●   মামুনুল হককে তৃতীয় দফায় পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত ●   মোরেলগঞ্জে সরকারিভাবে ২৭ টাকা কেজি দরে ধান ক্রয়ের উদ্বোধন ●   চারদিনেও গ্রেফতার হয়নি সুমেলের খুনি ●   ত্রাণ বিতরণে দলীয় পরিচয়কে গুরুত্ব দেয়া যাবেনা : পার্বত্য মন্ত্রী ●   সুন্দরবনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি ●   মানিকছড়িতে জীপ চালক সমিতির নেতার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার ●   রাঙামাটিতে ২ মাদক ব্যবসায়ী আটক ●   সকল তামাকপণ্যের দাম বৃদ্ধির দাবিতে ভার্চুয়াল মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত ●   করোনায় কর্মহীন অসহায় মানুষের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর উপহার বিতরণ ●   ঝিনাইদহে তোহামনি ধান চাষে সফল্য ●   কুষ্টিয়ায় চাকরি দেয়ার নামে যুবকদের সাথে প্রতারণা ●   সুমেল হত্যা মামলার আসামির পাসপোর্ট জব্দ করেছে পুলিশ : গ্রেপ্তার-১ ●   নবীগঞ্জে সরকারীভাবে প্রতিমন ১০৮০ টাকা দরে ধান সংগ্রহ শুরু ●   বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবসে সাংবাদিক সত্যজিৎ চাকমা’র ওপর হামলাকারীদের শাস্তি দাবি ●   দেশের ৮ বিভাগে সাইবার ট্রাইব্যুনাল গঠন ●   স্বাস্থ্যবিধি মেনে ৬ মে থেকে শহরের মধ্যে গণপরিবহন চলবে ●   ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সাংবাদিকের পেশাগত দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধকতা ●   নলছিটিতে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে বৃদ্ধা মহিলার মৃত্যু ●   একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের উপকরণ নষ্ট করে ফেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইসি ●   মোরেলগঞ্জে ৯১০ পিচ ইয়াবাসহ আটক-২ ●   আটককৃত শিক্ষার্থীদের ঈদের আগেই মুক্তি দাবি করেছেন ডা. জাফরুল্লাহ ●   রাউজানে এক রাতে তিনটি মন্দিরসহ বাড়ী ও দোকানে চুরি ●   শ্বাসকষ্ট বাড়ায় সিসিইউতে খালেদা জিয়া
রাঙামাটি, বৃহস্পতিবার, ৬ মে ২০২১, ২৩ বৈশাখ ১৪২৮


CHT Media24.com অবসান হোক বৈষম্যের
সোমবার ● ৩ মে ২০২১
প্রথম পাতা » সকল বিভাগ » খুনি সাইফুলকে ধরিয়ে দিলে ৫ লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা
প্রথম পাতা » সকল বিভাগ » খুনি সাইফুলকে ধরিয়ে দিলে ৫ লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা
১১০ বার পঠিত
সোমবার ● ৩ মে ২০২১
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

খুনি সাইফুলকে ধরিয়ে দিলে ৫ লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা

ছবি: সংবাদ সংক্রান্ত মো. আবুল কাশেম, ষ্টাফ রিপোর্টার :: সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার ‘চাউলধনীর হাওরের বিরোধ’সহ নানা ঘটনার জের ধরে শনিবার (১ মে) বিকেলে দৌলতপুর ইউনিয়নের চৈতননগর গ্রামে ‘সাইফুলের পক্ষ ও নজির উদ্দিন পক্ষের’ সংঘর্ষ হয়। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হন শাহজালাল ঘাঘুটিয়া উচ্চবিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির ছাত্র সুমেল আহমদ শুকুর (১৭)। রবিবার (২ মে) তার দাফন সম্পন্ন হয়েছে।
এদিকে, সুমেলের উপর গুলি বর্ষণকারী বহুল আলোচিত সাইফুল আলমকে ধরিয়ে দিতে ৫ লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছে। যুক্তরাজ্য প্রবাসী ও উপজেলার পশ্চিম চান্দশিরকাপন গ্রামের মোহাম্মদ কবির মিয়া ওই পুরস্কারের ঘোষণা দিয়েছেন।
উল্লেখ্য, শনিবার (১মে) বিকেলে উপজেলার ‘চৈতননগর-ইসলামপুর-টুকেরবাজার সড়ক’ ভরাটের জন্য নজির উদ্দিন পক্ষের কৃষি জমি থেকে জোরপূর্বকভাবে সাইফুল আলমের পক্ষের লোকজন মাটি কাটতে শুরু করেন। এসময় নজির উদ্দিন পক্ষের পক্ষের লোকজন মাটি কাটায় নিষেধ দেন। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে বাকবিতন্ডা শুরু হয়। এর একপর্যায়ে উভয়পক্ষ সংঘর্ষে লিপ্ত হন। সংঘর্ষ চলাকালে আলোচিত সাইফুল আলমের চালানো করা গুলিতে নজির উদ্দিনসহ তার পক্ষের ৫ জন গুলিবিদ্ধ হন। গুলিবিদ্ধদের মধ্যে নজিরের ভাতিজা ও ১০ম শ্রেণির শিক্ষার্থী সুমেল আহমদ শুকুর মৃত্যুবরণ করেন।
অপরদিকে, নজির উদ্দিন, তার (নজির) ভাই যুক্তরাজ্য প্রবাসী মনির উদ্দিন ও মানিক উদ্দিন (নিহত সুমেলের পিতা), ভাতিজা সালেহ আহমদকে গুরুত্বর আহত অবস্থায় সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

বিশ্বনাথে চুরির মামলায় যুবদল নেতা গ্রেফতার

বিশ্বনাথ :: সিলেটের বিশ্বনাথে এনজিও সংস্থা আরডিআরএস এর অফিসের আলমারির বোল্ড ভেঙে টাকা চুরি করার অভিযোগে উপজেলা যুবদলের সদস্য আব্বাস আলী সুমন (৩৪) ‘কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সে উপজেলার দক্ষিণ মিরেরচর গ্রামের মৃত আরফান আলীর পুত্র।
এঘটনায় এনজিও সংস্থা আরডিআরএস এর ম্যানেজার লিয়াকত আলী বাদী হয়ে রবিবার (২ মে) বিশ্বনাথ থানায় সুমনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং ৩।
পুলিশ জানায়, বিশ্বনাথ পৌর শহরের টিএনটি রোডস্থ ‘বেগম এন ইসলাম প্লেস’ বাসায় কেয়ারটেকারের দায়িত্বে থাকা আব্বাস আলী সুমন শনিবার রাত ৯টার দিকে ওই বাসায় এনজিও সংস্থা আরডিআরএস এর অফিসের আলমারির তালা ভেঙে বোল্ডের ভিতরে থাকা দেড় লক্ষাধিক চুরি করে। এঘটনায় আরডিআরএস এর ম্যানেজার থানায় অভিযোগ দায়ের করলে রোববার বিকেল সাড়ে ৩টায় ওই বাসা থেকে সুমনকে আটক করে পুলিশ। এসময় তার কাছ থেকে চোলাইকৃত ১ লাখ ৬৬ হাজার ৩শত টাকা উদ্ধার করা হয়।
মামলা দায়ের ও গ্রেফতারের সত্যতা স্বীকার করেছেন বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) শামীম মুসা।

বিশ্বনাথে স্কুল ছাত্র সুমেলের লাশ নিয়ে থানা গেইটে অবস্থান কর্মসুচী

বিশ্বনাথ :: সিলেটের বিশ্বনাথে চাউলধনী হাওর লীজ গ্রহীতা প্রধান সাইফুল আলমের বন্দুকের গুলিতে নিহত দশম শ্রেণীর ছাত্র সুমেল আহমদের লাশ নিয়ে থানা গেইট ঘেরাও করে অবস্থান কর্মসুচী পালন করেছে বিক্ষুদ্ধ জনতা। রবিবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে এ অবস্থান কর্মসুচী পালন করেন তারা। সময় বক্তারা বলেন, কৃষক ছরকুম আলী দয়াল ও স্কুল ছাত্র সুমেল হত্যার মাষ্টার মাইন্ড, চাউলধনী হাওর খেকু খুনি সাইফুল ও তার সহযোগীদের অভিলম্বে গ্রেফতার করে ফাঁসির বাদি জানান। অন্যতায় কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।
শনিবার বিকেল ৩টার দিকে চাউলধনী হাওরের লীজ গ্রহীতা বাহিনীর প্রধান সাইফুল ও তার বাহিনী নিয়ে চৈতননগর এলাকায় কৃষকদের মালিকানা জমি থেকে মাঠি কাটতে গেলে কৃষকরা বাধা দেন। এতে সাইফুল আলম উত্তেজিত হয়ে সাথে থাকা একটি বন্দুক ও পিস্তল দিয়ে উপর্যপুরী গুলি করে। এতে স্কুল ছাত্র সুমেল, তার পিতা মানিক মিয়া, চাচা প্রবাসি মনির মিয়া ও চাচাতো ভাই সালেহ আহমদ গুরুত্বর গুলিবিদ্ধ হয়। এতে সুমেলের মাথা, চক্কু ও বুকে ৫/৬টি গুলি লাগে। তার পিতার মাথায় গুলি থাকাবস্থায় তিনি সুমেলকে কুলে নিয়ে হাসপাতালে যাওয়ার পথে সে মারা যায়। বাকি গুলিবিদ্ধদেরকে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
ইতিপূর্বে চাউলধনী হাওরপাড়ের ২৫টি গ্রামের কৃষকরা প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি ও সংবাদ সম্মেলন করে সাইফুল বাহিনীর নিকট থেকে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের দাবী করেছিলেন। কিন্তু স্থানীয় প্রশাসনের আশকারা পেয়ে সাইফুল বাহিনী বেপরোয়া হয়ে চৈতননগর গ্রামের কৃষক দয়ালকে হত্যা করে। এই হত্যা মামলাটি বড় অঙ্কের টাকার বিনিময়ে ধামাচাপা দিয়ে আদালতে মূল খুনিকে বাদ দিয়ে একটি অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। সন্ত্রাসী বাহিনী চার্জশীট থেকে অব্যাহতি পেয়ে শনিবার পূণরায় প্রকাশ্যে কৃষকদের উপর গুলি চালিয়েছে। এ ঘটনায় এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। এবং দেশ বিদেশে নিন্দার ঝড় বইছে।
এ ব্যাপারে বিশ্বনাথ থানার ওসি শামীম মূসা জানান, ঘটনায় খবর শুনে সাথে সাথে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায় এবং ৪জনকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনার মুল হোতা সাইফুলকে গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।

বিশ্বনাথে সুমেল হত্যাকান্ডে শোকের ছায়াঃ যেভাবে পালিয়ে গেল খুনিরা

বিশ্বনাথ : সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার সাইফুল এখন মুর্তিমান এক আতংকের নাম। তার কর্মকান্ডে দেশ-বিদেশে যেন আতংক ছড়িয়ে পড়েছে। সে যুক্তরাজ্য প্রবাসী হলেও বেশি দিন সেখানে থাকে না। অবৈধ ভাবে টাকার পাহাড় গড়ে দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে এলাকায় রাজত্ব কায়েম করতে চাচ্ছে। ভূয়া মৎসজীবি সমিতি গঠন করে চাউলধনী হাওর লীজ নিয়ে এলাকার কৃষক সমাজের উপর অত্যাচার নির্যাতনের কাহিনী অনেক দিনের। সে একটি নিজস্ব বাহিনী গঠন করেছে। টাকা দিয়ে সব কিছু ম্যানেজ করতে পারে সে। এলাকাবাসী তার অত্যাচারে অতিষ্ট। কেউ কোন টু শব্দ করলেই বন্ধুক হাতে নিয়ে ভয় দেখাত। গ্রামবাসীকে হুমকি দিয়ে বলত, খুন এখন স্বাভাবিক বিষয়। টাকা দিয়ে আইন কেনা যায়। আমার টাকা খায় না এমন কোন লোক আছে ? সে একজন মন্ত্রী ও দুইজন সচিবের নাম ভাঙ্গিয়ে এলাকায় দাপট দেখাত। সচিবরা নাকি যুক্তরাজ্যে গেলে তার বাসায় থাকা-খাওয়া করতেন এবং উপ টোকনও নিতেন। এই হলো তার ক্ষমতা ও সাহসের দাপট। এসব নিয়ে এখন বিশ্বনাথে সর্বত্র আলোচনা সমালোচনা হচ্ছে।
গত ১লা মে চাউলধনী হাওরের দক্ষিণ পাড়ে চৈতননগর এলাকায় গুলিবর্ষণের ঘটনায় নতুন করে বেশ কিছু তথ্য পাওয়া গেছে। আগে তার বিরুদ্ধে কেউ কোন কথা না বললেও এখন সবাই মূখ খুলতে শুরু করেছেন।
বিভিন্ন সূত্রসহ স্থানীয় জনসাধারণ অভিযোগ করে বলেছেন, ১লা মে শনিবার ঘটনার পূর্বে প্রায় ৮/১০দিন ধরে সাইফুল সন্ধার পর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত থানায় বসে থাকতো। সাধারণ মানুষ কোন কাজ নিয়ে গেলেই তার গল্প গুজবের কারনে পুলিশের সাথে কথা বলার সুযোগ পাওয়া যেত না। গ্রামবাসীর অভিযোগ মাটি কাটার ব্যাপারে কেউ বাধা আপত্তি করলে পুলিশ যেন সাথে সাথে তাকে সহায়তা করে, এমন রফাদফার পর নিশ্চয়তা পেয়েই সে কৃষক নজির ও মানিকের ভূমিতে জোরপূর্বক মাটি কাটা শুরু করে। গুলিবর্ষণের ঘটনার পর সাইফুলই থানায় ফোন করে ঘটনার স্থলে পুলিশ নিয়ে যায়। সে বলেছে প্রতিপক্ষের লোকজন নাকি তার লোকের উপর গুলিবর্ষণ করেছে। বিশ্বনাথ থানা পুলিশের একজন কর্মকর্তার নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে সাইফুলের সাথে কথাবার্তা বলে তাকে সরিয়ে দেয়ার সুযোগ করে দেয়ার গুরুত্ব অভিযোগ রয়েছে। পুলিশের সাথে সাইফুলকে দেখে এলাকার লোকজন উত্তেজিত হয়ে পড়েন। এই সুযোগে সাইফুল ও তার বাহিনী পাশ্ববর্তী থানার একটি গ্রামে পালিয়ে যায়।
স্থানীয় সাংবাদিকরা ঘটনারস্থলে গেলে এমন ঘটনার বর্ণনা দেন প্রত্যেক্ষদর্শীরা। এমনকি স্কুল ছাত্র সুমেলের চাচা নজির মিয়াও এমন অভিযোগ করেন। সাইফুল পালিয়ে যাওয়ার পর স্থানীয় জনতা চারজনকে ঘেরাও করে রাখে এবং এই চারজনকে পুলিশ থানায় নিয়ে আসে। সাইফুল পাশ্ববর্তী একটি থানার একটি গ্রামের অবস্থান করে মোবাইল ফোনে ঘটনার সাথে জড়িত নয় মর্মেও সাংবাদিকদের নিকট বক্তব্য দেয়।
চৈতননগর গ্রামের কৃষক দয়াল হত্যা মামলার প্রধান আসামী হলেও সাইফুল থানায় আসা-যাওয়া করতো। তার নামীয় গেঞ্জি পড়ে উপজেলা প্রশাসন র্যালি করার সচিত্র প্রতিবেদনও গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়। প্রশাসনের সাথে সংখ্যতা গড়ে তুলে তার ক্ষমতার দাপট বেড়ে যায়। অবশেষে নিষ্টুর ভাবে সামান্য কথা কাটাকাটির জের ধরে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে বন্ধুক, পিস্তল দিয়ে গুলি করে নিরীহ গ্রামবাসীকে আহত করার মর্মান্তিক ঘটনায় সমগ্র উপজেলায় নিন্দার ঝড় বইছে। নিহত সুমেলের পিতা আব্দুল মানিকের অবস্থাও গুরুত্বর। তিনি ওসমানী হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন এবং ইতিমধ্যে কয়েকবার বমিও করেছেন। তার মাথায় কয়েকটি গুলিও রয়েছে।
দৌলতপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আনোয়ার হোসেন ও চৈতননগর গ্রামের আফজল হোসেন জানান, আহতদের নিয়ে তারা হাসপাতালে যাওয়ার পথে এক করুণ কাহিনী লক্ষ্য করলেন। গুলিবিদ্ধ পিতা আব্দুল মালিক জখমীপুত্র সুমেলকে বুকে নিয়ে বাচাঁ বার জন্য বারবার সকলের প্রতি কাকুতি মিনতি করছেন। তাদের বহণকারী গাড়ীটি ওসমানী হাসপাতালের গেইটের ভিতর প্রবেশ করা মাত্রই পিতার বুকের উপরই পুত্রের মৃত্যু ঘটে। এ ঘটনায় আনোয়ার হোসেন মেম্বার অজ্ঞান হয়ে পড়েন এবং তাকে বেসরকারী একটি ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়।
শনিবার রাত প্রায় ৮টার সময় সিলেটের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন আহমদ ঘটনারস্থল পরিদর্শন করে খুনিদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আশ্বাস্ দিয়েছেন বলে স্থানীয়রা জানান।
সৌদিআরব প্রবাসী নূর আছকির ফেইসবুক লাইভে এক বার্তায় এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে খুনি সাইফুল ও তার সহযোগিদের গ্রেফতারের দাবী জানান। এঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।
উল্লেখ্য যে, শনিবার বিকাল অনুমান ৩টায় চৈতননগর গ্রামে নজির ও মানিকের ক্ষেতের জমিতে জোরপূর্বক ভাবে সাইফুল ও তার বাহিনী মাটি কাটতে গেলে বাধা দেয়ার কারনে বন্ধুক, পিস্তল ও দেশি অস্ত্রসস্ত্র দিয়ে ভূমি মালিকদের উপর হামলা করে সাইফুল ও তার বাহিনী। এতে প্রায় ১০জন আহত হন। গুলিবিদ্ধ হয়েছিলেন স্কুল ছাত্র নিহত সুমেল, তার পিতা আব্দুল মালিক, চাচা মনির উদ্দিন। অন্যদের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

বিশ্বনাথে এক দিনে তিনজনের প্রাণহানি

বিশ্বনাথ :: সিলেটের বিশ্বনাথে এক দিনেতিনজনের প্রাণহানি হয়েছে। সাইফুলের গুলিতে এক স্কুল ছাত্র নিহত এবং করোনায় আক্রান্ত হয়ে বিশ্বনাথে দুই জনের মৃত্যু হয়েছে।
জানা গেছে, উপজেলার দৌলতপুর ইউনিয়নের কৃষি জমি থেকে জোরপূর্বক মাটি কাটাকে কেন্দ্র করে চৈতননগর গ্রামে শনিবার বিকেলে ‘সাইফুল আলম গং ও নজির উদ্দিন গংদের’ মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়ে সুমেল আহমদ শুকুর (১৭) নামের ১০ম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন। নিহত সুমেল চৈতননগর গ্রামের মানিক উদ্দিনের পুত্র ও নজির উদ্দিনের ভাতিজা এবং শাহজালাল (রাঃ) উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণীর ছাত্র। নজির গংদের কৃষি জমি থেকে সাইফুল গংরা জোরপূর্বক মাটি কাটতে গেলে ওই সংঘর্ষের ঘটনা সংগঠিত হয়।
এঘটনায় এলাকার চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। সংঘর্ষের খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থ ছুটে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। পরিস্থিতি শান্ত রাখতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। উভয় পক্ষের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে চাউলধনীর হাওরসহ নানাবিধ কারণে বিরোধ চলে আসছে। আদালতে চলমান রয়েছে পাল্টাপাল্টি মামলা। এসব বিরোধ ও কৃষি জমি থেকে জোরপূর্বক মাটি কাটার জের ধরে শনিবারের সংঘর্ষ সংগঠিত হয়েছে বলে জানা গেছে।
এঘটনায় নজির গংদের পক্ষের আরো ৪ জন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। গুলিবিদ্ধ আহতরা হলেন- নজির উদ্দিন, তার (নজির) ভাই যুক্তরাজ্য প্রবাসী মনির উদ্দিন ও মানিক উদ্দিন (নিহত সুমেলের পিতা), চাচা সালেহ আহমদ। আহতদের মধ্যে প্রবাসী মনির উদ্দিন ও মানিক উদ্দিনের অবস্থা আশংঙ্কাজনক অবস্থায় মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে বলে খবর পাওয়া গেছে। সংঘর্ষে সাইফুল গংদের পক্ষের লোকজন আহত হলেও তাদের নাম পাওয়া যায়নি।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শনিবার বিকেলে উপজেলার ‘চৈতননগর-ইসলামপুর-টুকেরবাজার সড়ক’ ভরাটের জন্য নজির গংদের কৃষি জমি থেকে জোরপূর্বকভাবে সাইফুল গংরা মাটি কাটতে শুরু করেন। এসময় নজির গং পক্ষের লোকজন জোরপূর্বক মাটি কাটায় নিষেধ দেন। এনিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে বাকবিতন্ডা শুরু হয়। এর এক পর্যায়ে উভয় পক্ষ সংঘর্ষে লিপ্ত হন। সংঘর্ষে নজির উদ্দিনসহ তার পক্ষের ৫ জন গুলিবিদ্ধ হন। গুলিবিদ্ধদের মধ্যে নজিরের ভাতিজা ও ১০ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী সুমেল আহমদ শুকুর মৃত্যুবরণ করেন এবং বাকী ৪ জন সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
এব্যাপারে নজির উদ্দিন বলেন, অস্ত্র-সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সাইফুল আমাদের (নজির) কৃষি জমি থেকে জোরপূর্বকভাবে মাটি কাটছে খবর পেয়ে আমরা সেখানে গিয়ে মাটি কাটতে নিষেধ দেই। এসময় সাইফুল তার হাতে থাকা আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে আমাদেরকে লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি করে। সাইফুলে করা গুলিতে ১০ম শ্রেণীতে পড়া আমার ভাতিজা নিহত হয়েছে ও প্রবাসী ভাইসহ আমরা আরো ৪ জন গুলিবিদ্ধ হয়েছি। তাদের হামলায় আমাদের আরো লোকজন আহত হয়েছেন।
এব্যাপারে সাইফুল আলম বলেন, এলাকার মুরব্বীদের দেওয়া পূর্ব সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সড়কের মাটি কাটতে গেলে তারা (নজির গং) আমাদের উপর অতর্কিত হামলা করে। হামলায় আমাদের পক্ষের বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। এসময় নজিরের ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীরা আমাদের লক্ষ্য করে গুলি করেছে।
সংঘর্ষের ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) শামীম মুসা বলেন, পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। অনাকাঙ্খিত ঘটনা এড়াতে এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।
এদিকে করোনায় আক্রান্ত হয়ে শনিবার সিলেটের বিশ্বনাথে ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃত্যুবরণকারীরা হলেন- উপজেলার সদর ইউনিয়নের রজকপুর গ্রামের মদরিছ আলীর স্ত্রী আরফুল বেগম (৮০) এবং লামাকাজী ইউনিয়নের আকিলপুর গ্রামের মৃত মোজেফর আলীর পুত্র ও ভূরকি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এমএলএসএস শরীফ উদ্দিন (৫০)
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, এপর্যন্ত বিশ্বনাথে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন মোট ২৬৩ জন। আক্রান্তদের মধ্যে ১০ জন মৃত্যুবরণ করেছেন ও ১২ জন আইসোলেশনে রয়েছেন। বাকী আক্রান্তরা চিকিৎসা গ্রহণ করে সুস্থ হয়েছেন।

আর-রাহমান এডুকেশন ট্রাস্ট ও খিদমাতুল উম্মাহ্ ফাউন্ডেশনের ইফতার মাহফিল সম্পন্ন

বিশ্বনাথ :: যেখানে অন্য কাউকে উৎসাহ দান উদ্দেশ্য হয় না সেখানে যে কোনো ধরনের দান-সদকায় গোপনীয়তা রক্ষা করা উত্তম। শুধু উত্তমই না অতি উত্তম।
নবী করীম (সা.) সাত শ্রেণির মানুষকে কিয়ামত দিবসে আল্লাহর আরশের ছায়াতলে আশ্রয় পাবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন। এ সাত শ্রেণির অন্যতম হল-যে ব্যক্তি সদকা দানে এমনভাবে গোপনীয়তা রক্ষা করে তার ডান হাতে কি দিল বাম হাত তা বুঝতে পারে না (সহীহ বুখারী)
বাংলাদেশসহ বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাস থেকে সকল মুসলমানদের হেফাজতের লক্ষ্যে খিদমাতুল উম্মাহ্ ফাউন্ডেশনের আয়োজনে ও আর রাহমান এডুকেশন ট্রাস্ট ইউকে’র সহায়তায় এক দোয়া ও ইফতার মাহফিল দোয়ারা বাজার থানার পান্ডারগাঁও ইউনিয়নের বাহাদুর পুর গ্রামের জামে মসজিদ প্রাঙ্গনে ১লা মে শনিবার সম্পন্ন হয়েছে। খিদমাতুল উম্মাহ্ ফাউন্ডেশনের পরিচালক মাহফুজ আল মাদানীর সার্বিক ব্যবস্থাপনায় উক্ত দোয়া ও ইফতার মাহফিলে সভাপতিত্ব করেন খিদমাতুল উম্মাহ্ ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা মাওলানা শহিদ উল্লাহ। ইফতার ও দোয়া পূর্ব আলোচনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন পান্ডার গাঁও ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান জনাব আব্দুল ওয়াহিদ, সোনাপুর মাদরাসার শিক্ষক মাওলানা আব্দুল জলিল, বাহাদুর পুর মসজিদের ইমাম মাওলানা মোশাররফ হোসাইন তালুকদার, বাহাদুর পুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক জনাব আক্তার হোসেন, মাহফুজ আল মাদানী ও মাওলানা রশিদ আহমদ। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কুরআন থেকে তেলাওয়াত করেন খিদমাতুল উম্মাহ্ ফাউন্ডেশনের অন্যতম সদস্য গোলাম রব্বানী সাঈম ও হাফিজ শামীম আহমদ।
উক্ত অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন গ্রামের বিশিষ্ট মুরব্বি বর্গ। আব্দুল আহাদ সরকার, আব্দুল খালিক, আব্দুল কাহার, রজব মিয়া, শফিক মিয়া, শামসুদ্দিন, এখলাছ মিয়া, বুরহান, নিজাম উদ্দিন, ইছাক আলী, ইনাত উল্লাহ, বাহার মিয়া, ইমরান, অগ্রযাত্রা ইসলামিক ফাউণ্ডেশনের সভাপতি ইসমাইল হোসেন জুয়েল, মিসবাহ উদ্দিন, লায়েক, নবীর হোসেন, সামিউর রহমান, মামুনন, নাহিয়ান সহ প্রমুখ।
ইফতার পূর্ব মুহূর্তে বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বের মুসলমানদের জন্য বিশেষ মুনাজাত করা হয়। পরে সর্বসাধারণকে নিয়ে অতিথিগণ ইফতার করেন।

বিশ্বনাথে ইউনিয়ন যুবলীগের উদ্যোগে ইফতার বিতরণ

বিশ্বনাথ :: সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার সদর ইউনিয়ন যুবলীগের উদ্যোগে সমাজের গরীব-অসহায়-দুস্থদের মধ্যে ইফতার বিতরণ কালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাখেন, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি ও সাবেক এমপি আলহাজ্ব শফিকুর রহমান চৌধুরী বলেছেন, আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা সুখে-দুঃখে মানুষের পাশে থাকেন সর্বদা এবং দেশ ও জাতির সকল দূর্যোগ ও সংকঠকালীন সময়ে সাহায্যের হাত প্রসারিত করেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র নির্দেশনা অনুযায়ী করোনাকালীন সময়েও এর ব্যতিক্রম হয়নি। বাঙালী জাতির উন্নয়নে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকার সততা, সচ্চতা ও জবাবদিহিতার মাধ্যমে কাজ করার ফলেই আজ দেশ উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হয়েছে।
তিনি রোববার বিকেলে সিলেটের বিশ্বনাথে উপজেলার সদর ইউনিয়ন যুবলীগের উদ্যোগে সমাজের গরীব-অসহায়-দুস্থদের মধ্যে ইফতার বিতরণকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথাগুলো বলেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক আলতাব হোসেন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন, বিশ্বনাথ সদর ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক আবুল হোসেন।
বিশ্বনাথ সদর ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক মনোহর হোসেন মুন্নার সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব সুন্দর আলী রুহুলের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা ইন্তাজ আলী, উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যান সম্পাদক আব্দুল মতিন, সদস্য তপন দাশ, আব্দুল জলিল জালাল, উপজেলা শ্রমিক লীগের সাবেক কার্যকরী সভাপতি শংকর দাশ শংকু। এসময় উপস্থিত ছিলেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক আব্দুর রউফ, যুবলীগ নেতা মুহিবুর রহমান সুইট, রাজু আহমদ খান প্রমুখ।



google.com, pub-4074757625375942, DIRECT, f08c47fec0942fa0

আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)