শিরোনাম:
●   ফেনসিডিল সহ মাদক ব্যবসায়ী নবাব আটক ●   উদ্বোধনের আগেই দেবে গেলো আত্রাই আঞ্চলিক মহাসড়ক ●   ইচ্ছা মানব উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে সিলেটে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ ●   বন্যার্তদের মধ্যে সেনাবাহিনীর খাদ্যসামগ্রী বিতরণ ●   বিদ্যালয়ের গ্রধান শিক্ষিকা উঁকুন তোলেন শিক্ষার্থীদের দিয়ে ●   গলায় ফাঁস দিয়ে বিশ্বনাথে বৃদ্ধের আত্মহত্যা ●   স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধন খাগড়াছড়িতে উৎসবের আমেজ ●   পদ্মা সেতু উদ্বোধনে কুষ্টিয়ায় বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা ●   পদ্মা সেতু দক্ষিণাঞ্চলের কৃষকের অর্থনীতির ইতিবাচক পরিবর্তন হবে ●   বিয়েতে রাজি না হওয়াতে রেজাউল পুত্র শাহারিয়ার মিথ্যা মামলায় এলাকা ছাড়া ●   বন্যা কবলিতদের সাহায্যার্থে বন্ধুত্বের বন্ধন মীরসরাই-২০০২ব্যাচ ●   পোড়াতে না পারায় পাথর বেঁধে সুরমা নদীতে লাশ ●   এপাড়-ওপাড় বাংলার শিক্ষার্থীদের এক মিলনক্ষেত্র রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় ●   নবীন গবেষকদের জন্য দিক-নির্দেশনামূলক ওয়েবিনার ●   পদ্মা সেতুর মাধ্যমে নিজেদের ভাগ্য উন্নয়নের স্বপ্ন দেখছে ঝালকাঠিসহ দক্ষিণাঞ্চলের কৃষিজীবী ও পর্যটন শিল্পে জড়িতরা ●   মোরেলগঞ্জে কারিগরি কলেজে এইচএসসি ফর্ম ফিলাপের নামে অতিরিক্ত অর্থ আদায় ●   হিল উইমেন্স ফেডারেশন পুনর্গঠিত : নীতি সভাপতি ও রিতা সম্পাদক ●   বহুমুখী সমস্যা ও পৃষ্ঠপোষকতার অভাবে সংকটের মুখে মৃৎ শিল্প ●   কালের স্বাক্ষী গান্ধী আশ্রম হতে পারে পর্যটন কেন্দ্র ●   আত্রাইয়ে আ’লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন ●   ঝিনাইদহে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত ●   বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত সাংবাদিকদের পাশে দাঁড়ালেন শফিক চৌধুরী : বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে আরো একাধিক সংবাদ ●   মিরসরাইয়ে ৪ হাজার ৭ শত ইয়াবা সহ গ্রেফতার-৩ ●   কাউখালীতে সাত দিনের আবাসিক সাঁতার প্রশিক্ষণ শেষ হয়েছে ●   বন্যার পানিতে ডুবে বিশ্বনাথে ৬ জনের মৃত্যু : নিখোঁজ শিশু ●   বালতির পানিতে ডুবে শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু ●   আক্কেলপুরে বাইক বিস্ফোরণে চালক দগ্ধ ●   কুষ্টিয়া মৎস্য কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ১৬টি পুকুর খননের অর্থ লোপাটের অভিযোগ ●   ময়মনসিংহকে শিক্ষা নগরী থেকে প্রযুক্তি নগরীতে রূপ দিতে ১৫৩ কোটি টাকা ব্যয়ে হাইটেক পার্ক হচ্ছে : পলক ●   গাবতলীতে জেলেদের মাঝে ভ্যান গাড়ী বিতরণ
রাঙামাটি, সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ১২ আষাঢ় ১৪২৯



CHT Media24.com অবসান হোক বৈষম্যের
বৃহস্পতিবার ● ২৩ জুন ২০২২
প্রথম পাতা » কুষ্টিয়া » কুষ্টিয়া মৎস্য কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ১৬টি পুকুর খননের অর্থ লোপাটের অভিযোগ
প্রথম পাতা » কুষ্টিয়া » কুষ্টিয়া মৎস্য কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ১৬টি পুকুর খননের অর্থ লোপাটের অভিযোগ
৪২ বার পঠিত
বৃহস্পতিবার ● ২৩ জুন ২০২২
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

কুষ্টিয়া মৎস্য কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ১৬টি পুকুর খননের অর্থ লোপাটের অভিযোগ

ছবি : সংবাদ সংক্রান্ত কে এম শাহীন রেজা, কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি :: কুষ্টিয়া জেলা মৎস্য বিভাগ থেকে কুষ্টিয়া জেলা মৎস্য অফিসের কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ১৬টি পুকুর খননের অর্থ লোপাটের অভিযোগ উঠেছে। পুকুর খনন করতে গিয়ে ‘সাগর চুরির’ ঘটনা ঘটেছে। শুধু তাই নয়, সরকারি জমিতে জলাশয় সংস্কারের নামে ২০২০-২১অর্থ বছরের নেওয়া অনাপত্তিপত্র সনদ দিয়েই জালজালিয়াতির মাধ্যমে চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরের নতুন প্রকল্প দেখিয়ে সেই প্রকল্পের টাকাও ব্যাংক চেকের মাধ্যমে লোপাট করা হয়েছে।

জেলা মৎস্য বিভাগের কর্মকর্তাদের তেলেসমাতিতেই এসকল ঘটনাগুলো ঘটেছে। নামমাত্র খনন, মনগড়া পিআইসি কমিটি করে খননের কাজ না করেই জেলা মৎস্যের উপসহকারী প্রকৌশলী সোহেল মিয়া’রা প্রকল্পের অর্থ পকেটে ভরেছেন। এ কাজে মাঠ পযার্য়ে জড়িত ছিলেন সদর উপজেলা মৎস্য অফিসার সুদীপ বিশ্বাস। সরকারি অর্থে পুকুর খননের জন্য কাগজে-কলমে প্রকল্প বাস্তবায়ন (পিআইসি) কমিটি গঠন করা হয়। বাস্তবে এসব কাজ বাস্তবায়ন করেন জেলা মৎস্য অফিসার নৃপেন্দ্রনাথ বিশ্বাস ও একই অফিসের উপসহকারী প্রকৌশলী সোহেল মিয়া।

বিভিন্ন কারসাজির মাধ্যমে সরকারি অর্থ আত্মসাত করতেও সোহেল মিয়া নিজেই দালাল চক্র সৃষ্টি করেছেন। আর তাদের নেতৃত্ব দিচ্ছেন তিনি নিজেই।অভিযোগ উঠেছে, কুষ্টিয়ার রেজা নামের এক ব্যক্তির কাছ থেকে প্রকল্প আসার আগেই প্রকল্প পাইয়ে দিতে ৮লক্ষ টাকা নিয়েছেন। এদিকে পান্না নামের এক ব্যক্তিকে ১ কোটি টাকার কাজ দেওয়ার কথা দিয়ে নিয়েছে প্রায় ১৬ লাখ টাকা। রহিদুল নামের অপর এক ব্যক্তিকে ২০লাখ টাকা বরাদ্দ করিয়ে দিতেও ৫ লাখ টাকা আগেই নিয়েছেন এই প্রকৌশলী। এদের মধ্যে রহিদুল ছাড়া অন্যদেরকে কথামতো টাকা এবং প্রকল্প দিতে না পারায় এবং রেজার কাছ থেকে বার বার টাকা নেওয়ায় বেঁধেছে গোলযোগ।

ভুক্তভোগী রেজা নামের ব্যক্তি গত ৩০ মার্চ, পান্না গত ১৭ এপ্রিল এবং রহিদুল গত ২৭ এপ্রিল কুষ্টিয়া জেলা মৎস্য অধিদপ্তরে এসে তান্ডব চালালেও কেউই কোনো প্রতিবাদ করেননি। অফিস ও তাদের সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য পাওয়া গেছে। সম্প্রতি মৎস্য অধিদপ্তর থেকে প্রকৌশলী সোহেল মিয়াকে দেওয়া হয়েছে বাড়তি দায়িত্ব। সেই সুযোগ কাজে লাগিয়েই বিভিন্নভাবে এসব টাকা লুটপাট করেছেন তিনি।

নামমাত্র কাজ করে পিআইসি কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের কাছ থেকে বরাদ্দ হওয়া অর্থের ব্যাংক চেক সই করে নিয়ে সেই টাকা নিজেদের পকেটে ভরছেন তারা। চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরে জেলার দৌলতপুর, মিরপুর, ভেড়ামারা ও কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় মাছ চাষ বাড়াতে পুকুর খননের জন্য বরাদ্দকৃত ১কোটি ৮৫ লক্ষেরও বেশি টাকা এভাবেই লুটপাট করেছেন কুষ্টিয়া জেলা মৎস্য অফিসের এই দুই কর্মকর্তা। সংশ্লিষ্ট প্রকল্প গুলোর পিআইসি কমিটির সভাপতি সাধারণ সম্পাদকের সাথে কথা বলে এমন অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ব্যাপারে জেলা মৎস্য অফিসের উপসহকারী প্রকৌশলী সোহেল মিয়ার সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলতে অফিসে গেলে তাকে পাওয়া যায়নি। পরে তার মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলে তিনি কলটি রিসিভ করেননি। কুষ্টিয়া সদর উপজেলা মৎস্য অফিসার সুদীপ বিশ্বাসের সঙ্গে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি কিছু অভিযোগের বিষয় স্বীকার করলেও এ ব্যাপারে কথা বলতে রাজি হননি তিনি।

কুষ্টিয়ার জেলা মৎস্য অফিসার নৃপেন্দ্রনাথ বিশ্বাস বলেন, কাগজে কলমে সবই ঠিকঠাক করে রেখেছি। ভুল ধরার সুযোগ নেই। বোঝেন তো এখানে রাজনৈতিক চাপ থাকে। আমার ওপরের কর্মকর্তাসহ সবাইকে ম্যানেজ করে আমি কাজ করি। ভুল না ধরে তার পক্ষে খবর প্রকাশ করতেও পরামর্শ দেন এই কর্মকর্তা।

প্রকল্প পরিচালক মো. আলিমুজ্জামান চৌধুরীর সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, কুষ্টিয়া জেলার ৪টি উপজেলার দৌলতপুর, মিরপুর, ভেড়ামারা ও সদর উপজেলায় জেলা মৎস্য অফিস থেকে ১৬টি পুকুর পুনঃখননে মাছচাষ বাড়াতে পুকুর খননের জন্য বরাদ্দকৃত ১কোটি ৮৫ লক্ষেও বেশি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। কাজ গুলো শুনেছি শেষের দিকে। কাজে অনিয়ম হলে কোন প্রকার ছাড় দেওয়া হবে না। আমাকে এ বরাদ্দকৃত টাকার ভাগ দেওয়া হয়েছে এটি সঠিক নয়, মিথ্যা ও বানোয়াট কথা বলেছেন তারা। নিজেরা অনিয়ম করে আমাকে ফাঁসাতে চাইছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে খোঁজ খবর নিয়ে অনিয়মের প্রমাণ পেলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।





google.com, pub-4074757625375942, DIRECT, f08c47fec0942fa0

আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)