শিরোনাম:
●   ব্যাংক ঋন গ্রহনের ক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধাদের জিম্মাদার হিসেবে গন্য করার আহবান ●   ইউ’পি চেয়ারম্যানসহ ঘোড়াঘাটে ৬ জুয়াড়ি আটক ●   করোনায় মারা গেলেন তায়েফ ●   ময়মনসিংহ মেডিকেলের করোনা ইউনিটে করোনা উপসর্গে আরও ৪ জনের মৃত্যু ●   গলায় ছোরা চালিয়ে যুবকের আত্মহত্যা ●   রাজস্থলীতে সেনাবাহিনীর উদ্যোগে মতবিনিময় সভা ●   পানছড়িতে ভারতীয় অবৈধ মালামাল জব্দ ●   চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত হলো উদ্যোক্তাদের সম্মেলন ●   তৃনমূল নেতাকর্মীরাই আওয়ামীলীগের প্রান : তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ●   আত্রাইয়ে শিশুদের জন্য নির্মিত হলো দৃষ্টিনন্দন শিশুপার্ক ●   চট্টগ্রামে র‌্যাবের অভিযানে অস্ত্রসহ আটক-২ ●   ময়মনসিংহ মেডিকেলের করোনা ইউনিটে করোনা ও উপসর্গে আরও ২ জনের মৃত্যু ●   বান্দরবানে পর্যটকবাহি বাসে গুলি : আহত-২ ●   কাকের প্রতি ‘বিরল ভালবাসা’ আত্রাইয়ের সায়মা বিবি’র ●   পোকা নিধনে ‘আলোক ফাঁদ’ ●   ঔষধ দিয়ে মিলছে না সুফল ●   ময়মনসিংহ মেডিকেলের করোনা ইউনিটে করোনা উপসর্গে আরও ১ জনের মৃত্যু ●   বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি নাটোর জেলা কমিটির বর্ধিত সভা ●   কাভার্ড ভ্যান চাপায় দুই বন্ধু নিহত ●   রাউজানে রাস্তা খনন কাজের সময় পাইপ ফেটে বের হয়েছে গ্যাস ●   যুবককে গলা কেটে মোটরসাইকেল ছিনতাই ●   মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে মানববন্ধন ●   কুষ্টিয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে ফেসবুকে কটূক্তি করায় যুবক আটক ●   বিশ্বনাথে দিন দুপুরে চুরি- নগদ টাকা স্বর্ণলংকার লুট ●   ভাড়া ভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের মেয়াদ আরও পাঁচ বছর বৃদ্ধি করায় বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির নিন্দা ●   ময়মনসিংহ মেডিকেলের করোনা ইউনিটে করোনা ও উপসর্গে আরও ৬ জনের মৃত্যু ●   ইভ্যালির সিইও এবং চেয়ারম্যান গ্রেপ্তার ●   বান্দরবানে পাহাড় ধসে ভাই-বোনের লাশ উদ্ধার, মা নিখোঁজ ●   ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে চলছে শিক্ষার্থীদের পাঠদান ●   চেঙ্গী নদীতে শিশু নিখোঁজের ১সপ্তাহ পর মৃতদেহ উদ্ধার
রাঙামাটি, সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৫ আশ্বিন ১৪২৮


CHT Media24.com অবসান হোক বৈষম্যের
শুক্রবার ● ৩০ জুলাই ২০২১
প্রথম পাতা » জাতীয় » হেলেনা জাহাঙ্গীরের কেন এমন পরিণতি হল
প্রথম পাতা » জাতীয় » হেলেনা জাহাঙ্গীরের কেন এমন পরিণতি হল
১১৫ বার পঠিত
শুক্রবার ● ৩০ জুলাই ২০২১
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

হেলেনা জাহাঙ্গীরের কেন এমন পরিণতি হল

ছবি : সংগৃহীতআওয়ামী লীগ থেকে পদ হারানো বহুল আলোচিত-সমালোচিত ব্যবসায়ী নেত্রী হেলেনা জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে পাঁচটি মামলা হচ্ছে। আজ শুক্রবার ৩০ জুলাই এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন জানিয়েছেন, হেলেনা জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন, বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইন, বিশেষ ক্ষমতা আইন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন এবং টেলিযোগাযোগ আইনে মামলাগুলো দায়ের করা হবে।
এর আগে বৃহস্পতিবার রাত সোয়া ১২টার দিকে তাকে আটক করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। রাত ৮টা থেকে হেলেনার গুলশানের বাসায় অভিযান শুরু হয়। সেই অভিযান চলে রাত সোয়া ১২টা পর্যন্ত। এরপর তাকে আটক করে নিয়ে যান র‌্যাব সদস্যরা। অভিযানে তার বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ বিদেশি মদ, ক্যাসিনো খেলার সরঞ্জাম, ওয়াকিটকি, বিদেশি চাকু এবং হরিণ ও ক্যাঙারুর চামড়া জব্দ করা হয় বলে জানায় র্যাব।
দেশের করোনা সংকটের মধ্যেও হেলেনা জাহাঙ্গীরই এখন ‘টক অব দ্য কান্ট্রি’। ব্যবসায়িক ও হালে রাজনৈতিক অঙ্গণের এক রহস্যময় চরিত্র হেলেনা জাহাঙ্গীরের কেন এমন পরিণতি হল, সেটাও এ মৃর্হূতে তুমুল আলোচনার বিষয়ে পরিণত হয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের কল্যাণে দেশের গণ্ডি ছাড়িয়ে বিদেশেও প্রবাসীদের মাঝে এটি আলোচিত ইস্যু।
সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘বাংলাদেশ আওয়ামী চাকরিজীবী লীগ’ নামে ভুঁইফোড় একটি সংগঠনের সভাপতি হিসেবে নাম আসার পর থেকেই এফবিসিসিআইয়ের পরিচালক ও জয়যাত্রা গ্রুপের কর্ণধার হেলেনা জাহাঙ্গীর বিতর্কের কেন্দ্রে চলে আসেন। গণমাধ্যমে আলোচনা-সমালোচনার ঝড় ওঠে। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নাম ভাঙিয়ে গড়ে তোলা ভুঁইফোড় ওই সংগঠনের সভাপতি হিসেবে হেলেনা জাহাঙ্গীর এবং সাধারণ সম্পাদক হিসেবে মাহবুব মনিরের নাম ঘোষণা করা হয়েছিল। পরে এ সংগঠনে জেলা-উপজেলা ও বিদেশ শাখায় সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক মনোনয়ন দেওয়া হচ্ছে জানিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি পোস্টারও ছাপা হয়।
ভুঁইফোড় এ সংগঠনের কথা সমালোচিত হওয়ার পরই মূলত নড়েচড়ে বসেন আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধাকরা। গত ২৫ জুলাই দলীয় প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয় হেলেনা জাহাঙ্গীরকে। আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক ও মহিলা বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য সচিব মেহের আফরোজ চুমকি স্বাক্ষরিত ওই প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারিত সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ড সংগঠনের নীতিবহির্ভুত হওয়ার কারণে দলের মহিলা বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য পদ থেকে হেলেনা জাহাঙ্গীরকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।
এর আগে নানা অভিযোগে কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগও তাদের কমিটিতে উপদেষ্টা পদে থাকা হেলেনা জাহাঙ্গীরকে অব্যাহতি দিয়েছিল। বিষয়টি নিশ্চিত করে কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ম. রুহুল আমিন বলেছেন, হেলেনা জাহাঙ্গীরকে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। গত ১৮ জুন এ সংক্রান্ত চিঠি ডাকযোগে দলের কেন্দ্রীয় দপ্তরেও পাঠানো হয়।
ছবি : সংগৃহীত
জানা যায়, দলের পদ হারানোর পরও হেলেনা জাহাঙ্গীরের দম্ভ ও ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ থেমে ছিল না। বিভিন্ন টেলিভিশনের টকশো, ফেসবুক লাইভ এবং নিজের প্রতিষ্ঠিত আইপি টেলিভিশন ‘জয়যাত্রার মাধ্যমে আওয়ামী লীগ এবং সরকারের মন্ত্রী-এমপি-নেতাদের বিরুদ্ধে অনেকটা প্রকাশ্যেই ক্ষোভ প্রকাশের পাশাপাশি উল্টাপাল্টা কথাবার্তা, কান্নাকাটির অভিনয়সহ নানা নাটকীয় আচরণ করে আসছিলেন তিনি। তাকে গ্রেপ্তারের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে- এমন আশঙ্কাও ব্যক্ত করে আসছিলেন তিনি। এমনকি বিভিন্ন অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগ নেতারা তাকে এড়িয়ে চলছেন, এমন অভিযোগও তোলেন তিনি। এক্ষেত্রে ফেসবুক কমেন্টে হাজার হাজার ব্যক্তি তার এমন অদ্ভূত আচরণকে ‘মানসিক অসুস্থতা’ আখ্যা দিয়ে নানা ধরনের কটূক্তি এবং তার বিরুদ্ধে প্রতারণার নানা অভিযোগ আনলেও মোটেই পাত্তা দেননি তিনি। বৃহস্পতিবার র্যাবের হাতে আটকের পরও তার হাত নাড়ানো ও হাস্যোজ্জ্বল থাকাকেও ‘পাগলামি’ হিসেবে অভিহিত করা হচ্ছে।
অবশ্য এর আগে থেকেই হেলেনা জাহাঙ্গীরের ‘আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ছাড়া কোনো মন্ত্রীকেও গুনি না’ এমন একটি বিতর্কিত বক্তব্যের ভিডিও ফেসবুকে ভাসছিল। এছাড়া ‘বাংলাদেশ আওয়ামী চাকরিজীবী লীগ’ এর পোস্টার প্রকাশের পর বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এবং জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান প্রয়াত হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের সঙ্গে হেলেনা জাহাঙ্গীরের পুরনো দুটি ছবিও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। জাতীয় পার্টি ও বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে তার সম্পৃক্ততা ছিল বলেও শোনা যায়। ২০১৪ সালের নির্বাচনের পর হঠাৎ-ই আওয়ামী লীগার বনে যান তিনি। যদিও এরশাদ-খালেদা জিয়ার সঙ্গে তোলা ছবি প্রকাশের পর হেলেনা জাহাঙ্গীর এক ফেসবুক পোস্টে দাবি করেছিলেন, ‘খালেদা জিয়া ও অন্যান্যদের সঙ্গে আমার যে ছবিগুলো ভাইরাল হচ্ছে, সেগুলো একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে তোলা এবং ছবিগুলা আমি নিজেই ফেসবুকে দিয়েছিলাম।’
এরশাদ ও খালেদা জিয়ার বাইরেও আওয়ামী লীগ সরকারের মন্ত্রী ও নেতাদের সঙ্গে হেলেনা জাহাঙ্গীরের তোলা ছবি প্রায়ই ফেসবুকে দেখা গেছে, যেগুলো তিনি নিজেই পোস্ট করে ‘রাজনৈতিক সুবিধা’ নেওয়ার চেষ্টা করেন বলেও অভিযোগ রয়েছে। আর নিজেকে ‘সিস্টার হেলেনা’ পরিচয় দিয়ে অসহায় মানুষকে কথিত মানবিক সাহায্য-সহযোগিতার প্রচার-প্রচারণাও চালিয়ে আসছিলেন তিনি। এছাড়া সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের আলোচিত ও বিতর্কিত সেফায়েতুল্লাহ সেফু ওরফে সেফুদার সঙ্গেও তার কথোপকথনের একাধিক ভিডিও ভাইরাল হয়েছে।
আজ শুক্রবার র‌্যাবের সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়েছে, হেলেনা জাহাঙ্গীর জয়যাত্রা ফাউন্ডেশন নামে একটি প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলে নানা প্রতারণা ও অপরাধের পাশাপাশি তার মালিকানাধীন জয়যাত্রা টেলিভিশন ও বিভিন্ন মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি ও সংস্থার বিরুদ্ধে নানা কুৎসা রটিয়ে আসছিলেন। র‌্যাবের অভিযানকালে জয়যাত্রা টেলিভিশনের সরকারি অনুমোদনের কোনো প্রমাণ মেলেনি। আর কথিত এ টিভিতে জেলা প্রতিনিধি নিয়োগের নামে সারাদেশের বেশ কিছু ব্যক্তির কাছ থেকে কী পরিমাণ অর্থ-বাণিজ্য করা হয়েছে- সেটারও অনুসন্ধান চলছে। জয়যাত্রা গ্রুপের কর্ণধার হেলেনা জাহাঙ্গীর নিজেকে আইপি টিভি ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের সভাপতি হিসেবেও পরিচয় দিয়ে আসছিলেন।
ছবি : সংগৃহীত
আওয়ামী লীগের সূত্রগুলো বলছে, ২০২০ সালের ডিসেম্বরে হেলেনা কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য হন। আবার মাস কয়েক আগে আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সদস্যপদও বাগিয়ে নিয়েছিলেন তিনি। যদিও বিতর্কিত কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে দুটি পদই হারিয়েছেন গ্রেপ্তারের আগেই। তাকে দলের পদে আনার ক্ষেত্রে কয়েকজন কেন্দ্রীয় নেতা ও মন্ত্রী সুপারিশ করেছিলেন বলে গুঞ্জন উঠেছে।
চলতি বছর সাবেক আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আবদুল মতিন খসরু মারা গেলে ওই আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নের জন্য তৎপরতা চালিয়ে ব্যর্থ হন হেলেনা। এর আগে ২০১৫ সালে তিনি ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র নির্বাচনে আনিসুল হকের প্রতিদ্বন্দ্বী হওয়ার ঘোষণা দেন। পরে তিনি নিজেই নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান।
রাজনীতি ছাড়াও বেশকিছু সামাজিক ও জনকল্যাণমূলক সংগঠনের সঙ্গে হেলেনার সম্পৃক্ততা রয়েছে। তিনি গুলশান ক্লাব, গুলশান নর্থ ক্লাব, বারিধারা ক্লাব, কুমিল্লা ক্লাব, গলফ ক্লাব, গুলশান অল কমিউনিটি ক্লাব, বিজিএমইএ অ্যাপারেল ক্লাব, বোট ক্লাব, গুলশান লেডিস ক্লাব, উত্তরা লেডিস ক্লাব, গুলশান ক্যাপিটাল ক্লাব, গুলশান সোসাইটি, বনানী সোসাইটি, গুলশান জগার্স সোসাইটি ও গুলশান হেলথ ক্লাবের সঙ্গে যুক্ত। হেলেনা জয়যাত্রা গ্রুপের আওতায় বেশকিছু শিল্পপ্রতিষ্ঠানেরও মালিক। এরমধ্যে প্রিন্টিং, এমব্রয়ডারি, প্যাকেজিং, স্টিকার ও ওভেন গার্মেন্ট রয়েছে। সূত্র : সমকাল



google.com, pub-4074757625375942, DIRECT, f08c47fec0942fa0

জাতীয় এর আরও খবর

অনলাইন নিউজপোর্টাল রেজিস্ট্রেশন একটি চলমান প্রক্রিয়া : তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী অনলাইন নিউজপোর্টাল রেজিস্ট্রেশন একটি চলমান প্রক্রিয়া : তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী
বনপা’র জরুরী সভা অনুষ্ঠিত বনপা’র জরুরী সভা অনুষ্ঠিত
গুজব রটানো ভুঁইফোড় অনলাইন নিউজ পোর্টাল বন্ধের উদ্যোগকে বনপা সাধুবাদ জানায় গুজব রটানো ভুঁইফোড় অনলাইন নিউজ পোর্টাল বন্ধের উদ্যোগকে বনপা সাধুবাদ জানায়
১শত পত্রিকার ডিক্লেয়ারেশন বাতিলের নির্দেশ ১শত পত্রিকার ডিক্লেয়ারেশন বাতিলের নির্দেশ
ইভ্যালিসহ ১০ ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেবে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ইভ্যালিসহ ১০ ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেবে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়
অনিবন্ধিত অনলাইন নিউজ পোর্টাল বন্ধের নির্দেশ হাইকোর্টের অনিবন্ধিত অনলাইন নিউজ পোর্টাল বন্ধের নির্দেশ হাইকোর্টের
দেশে ১১ সাংবাদিক নেতার ব্যাংক হিসাব তলব নিয়ে ব্যাপক আলোচনা দেশে ১১ সাংবাদিক নেতার ব্যাংক হিসাব তলব নিয়ে ব্যাপক আলোচনা
ময়মনসিংহ মেডিকেলের করোনা ইউনিটে আরও ৭ জনের মৃত্যু : সারা দেশে ৩৫ জনের মৃত্যু ময়মনসিংহ মেডিকেলের করোনা ইউনিটে আরও ৭ জনের মৃত্যু : সারা দেশে ৩৫ জনের মৃত্যু
আরেকটি মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে দেশকে মুক্তিযুদ্ধের দিশায় নিয়ে যেতে হবে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন পরিষদের সভায় বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ আরেকটি মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে দেশকে মুক্তিযুদ্ধের দিশায় নিয়ে যেতে হবে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন পরিষদের সভায় বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ
দেড় বছর পর উৎসবমুখর পরিবেশে স্কুল, কলেজ খুলেছে দেড় বছর পর উৎসবমুখর পরিবেশে স্কুল, কলেজ খুলেছে

আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)