শিরোনাম:
●   পুলিশ বলছে ফেসবুক কমেন্টের জেরে পীরগঞ্জে হিন্দুদের বাড়িঘরে আগুন ●   সাংবাদিক সুরক্ষা আইনের দাবিতে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পেশ ●   মিরসরাইয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে যুবকের আত্মহত্যা ●   ছাত্রকে চড় মারার অপরাধে শিক্ষককে পিটিয়ে জখম ●   আজ শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেল এর ৫৭তম জন্মদিন ●   ময়মনসিংহ মেডিকেলের করোনা ইউনিটে করোনা উপসর্গে আরও ৪ জনের মৃত্যু ●   রোহিঙ্গারা এবং আটকে পড়া পাকিস্তানিরা দেশের জন্য বোঝা হয়ে দাঁড়িয়েছে ●   বিশ্বনাথে পলাতক আসামি সেবুল মিয়া গ্রেফতার ●   সাম্প্রদায়িক হামলার বিচার দাবিতে গাইবান্ধায় বিক্ষোভ ●   হিন্দুদের নিরাপত্তা নিয়ে ভারতকে কেন সতর্ক করলেন প্রধানমন্ত্রী ●   রাউজানে চেয়ারম্যান পদ প্রার্থীদের দলীয় মানোনয়নপত্র ফরম গ্রহণ শুরু ●   বেগমগঞ্জে ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে লাশ নিয়ে বিক্ষোভ, চট্টগ্রামে অর্ধদিবস হরতাল ●   মিরসরাইয়ে ১২ স্বতন্ত্রসহ ২৮ চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র জমা ●   জেলা ছাত্রদলের সভাপতি ও সম্পাদকের বিরুদ্ধে কাগইলে ছাত্রদলের বিক্ষোভ ●   ময়মনসিংহ মেডিকেলের করোনা ইউনিটে করোনা উপসর্গে আরও ৩ জনের মৃত্যু ●   ব্যাটারি চালিত রিক্সা-ভ্যান বন্ধের ঘোষণা প্রত্যাহারসহ ক্ষতিপূরণ দিতে হবে ●   কাশবনে ছবি তুলতে নিয়ে কিশোরীকে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার-২ ●   আওয়ামীলীগ বিরোধী কাজ করেও নৌকা প্রতীক চান জিন্নাহ্ আলম তালুকদার ●   মহালছড়িতে গাঁজাক্ষেত ধংস করেছে সেনাবাহিনী ●   মন্দিরে ভাঙ্গচুরের প্রতিবাদে গাইবান্ধায় বিক্ষোভ ●   পূজামণ্ডপ রক্ষার মূল দায়িত্ব সরকারের, ব্যর্থতার দায়ও সরকারের : ডা. জাফরুল্লাহ ●   রাজনৈতিক ইন্ধন ছাড়া সাম্প্রদায়িক সহিংসতার ঘটনা ঘটতে পারে না : সাইফুল হক ●   উস্কানীমূলক তৎপরতার মাধ্যমে সাম্প্রদায়িক হামলা- আক্রমণ ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিরোধ করুন : বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি ●   বিশ্বনাথে ছাত্রদলের ৮ ইউনিয়ন কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা ●   ঝালকাঠিতে ১০ টাকার চাল বিক্রিতে অনিয়মের অভিযোগ ●   ধর্ম যেন ক্ষমতার হাতিয়ার না হয় : মোমিন মেহেদী ●   লায়ন আশীষ কুমার ভট্টাচার্যের সাথে বিনয়বাঁশী শিল্পীগোষ্ঠীর সৌজন্য সাক্ষাৎ ●   সারাদেশে পূঁজা মন্ডপে সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসী হামলার জন্য দায়ীদের অবিলম্বে গ্রেফতার কর : বাম জোট ●   মিরসরাইয়ে একই পরিবারের তিনজনকে জবাই করে হত্যা ●   ড্যাফোডিল আন্তর্জাতিক বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকদের সাথে ডিজিটাল সিটিজেনশিপ শিক্ষা নিয়ে কর্মশালা
রাঙামাটি, সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ৩ কার্তিক ১৪২৮


CHT Media24.com অবসান হোক বৈষম্যের
মঙ্গলবার ● ৫ অক্টোবর ২০২১
প্রথম পাতা » জাতীয় » সাবেক প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড চায় দুদক
প্রথম পাতা » জাতীয় » সাবেক প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড চায় দুদক
৫৬ বার পঠিত
মঙ্গলবার ● ৫ অক্টোবর ২০২১
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

সাবেক প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড চায় দুদক

ছবি : সংগৃহীত ঢাকা :: ফারমার্স ব্যাংক (বর্তমানে পদ্মা ব্যাংক) থেকে ৪ কোটি টাকা আত্মসাৎ ও পাচারের মামলায় সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার (এসকে সিনহা) যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রত্যাশা করছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।
মঙ্গলবার (৫ অক্টোবর) বেলা ১১টায় ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪ এর বিচারক শেখ নাজমুল আলমের আদালতে এ মামলার রায় ঘোষণার দিন ধার্য রয়েছে।
এসকে সিনহাসহ এ মামলায় মোট আসামি ১১ জন। পলাতক থাকায় সাবেক এই প্রধান বিচারপতির অনুপস্থিতিতেই হয় বিচার কাজ।
মামলার আসামিদের মধ্যে ফারমার্স ব্যাংকের অডিট কমিটির সাবেক চেয়ারম্যান মো. মাহবুবুল হক চিশতী (বাবুল চিশতী) কারাগারে। একই ব্যাংকের সাবেক এমডি এ কে এম শামীম, ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট স্বপন কুমার রায়, ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. লুৎফুল হক, সাবেক এসইভিপি গাজী সালাহউদ্দিন, টাঙ্গাইলের বাসিন্দা মো. শাহজাহান এবং একই এলাকার বাসিন্দা নিরঞ্জন চন্দ্র সাহা জামিনে আছেন।
অপরদিকে এসকে সিনহা, ফারমার্স ব্যাংকের ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট সাফিউদ্দিন আসকারী, রণজিৎ চন্দ্র সাহা ও তার স্ত্রী সান্ত্রী রায় পলাতক।
আসামিদের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ৪০৯/৪২০/১০৯ ধারা ও ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারা এবং ২০১২ সালের মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইনের ৪(২)(৩) ধারায় অভিযোগ গঠন করা হয়। যার মধ্যে সরকারি কর্মচারী হিসেবে ক্ষমতার অপব্যবহারের মাধ্যমে অপরাধমূলক বিশ্বাসভঙ্গ করার সর্বোচ্চ শাস্তি যাবজ্জীবন কারাদণ্ড। এছাড়া মানি লন্ডারিং আইনের ৪(৩) ধারায় সর্বোচ্চ ১২ বছর, সরকারি কর্মকর্তা হিসেবে অপরাধের জন্য দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় সাত বছর ও দণ্ডবিধির ৪২০ ধারায় প্রতারণার অভিযোগে সাত বছর কারাদণ্ডের শাস্তির বিধান রয়েছে।
দুদক কৌশলী মীর আহমেদ আলী সালাম প্রত্যাশা করছেন আসামিদের সর্বোচ্চ শাস্তি যাবজ্জীবন কারাদণ্ডই হবে। তিনি বাংলানিউজকে বলেন, আমরা যাবতীয় মৌখিক ও দালিলিক সাক্ষ্যপ্রমাণ আদালতে উপস্থাপন করেছি। ঋণ প্রদানসহ এই প্রক্রিয়ার সঙ্গে যারা জড়িত তারা সেসব ব্যাংকার, এসকে সিনহার ভাই-ভাতিজা, তার ব্যক্তিগত সহায়করা আদালতে সাক্ষ্য দিয়েছেন। আশা করছি আইনের বিধানের আলোকে এসকে সিনহাসহ আসামিদের সর্বোচ্চ সাজা হবে।
পলাতক থাকায় সিনহার পক্ষে আদালতে কোনো আইনজীবী ছিলেন না। তবে ফারমার্স ব্যাংকের অডিট কমিটির সাবেক চেয়ারম্যান মো. মাহবুবুল হক চিশতী (বাবুল চিশতী) ও ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. লুৎফুল হকের পক্ষে আইনজীবী ছিলেন শাহিনুর ইসলাম।
আইনজীবী শাহিনুর ইসলাম বলেন, এসকে সিনহা পলাতক থাকায় তার বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে চাই না। আসামিদের মধ্যে মাহবুবুল হক চিশতিকে ঋণ দেওয়ার ক্ষেত্রে প্রভাব খাটানোর কথা বলা হয়েছে। সাক্ষ্য প্রমাণে এই ঋণ অনুমোদনে তার প্রত্যক্ষ কোনো প্রভাবের প্রমাণ পাওয়া যায়নি। অপরদিকে, লুৎফুল হককে ঋণ দেয়া গুলশান শাখার অপারেশন ইনচার্জ ছিলেন। এই ঋণের বিষয়ে তিনি নেতিবাচক মন্তব্য করেন। তথাপি ব্যাংকের প্রধান কার্যালয় থেকে ঋণ দেওয়া হয়েছে। এখানে অপারেশন ইনচার্জের কোনো দায়দায়িত্ব থাকার কথা সাক্ষ্য প্রমাণে আসেনি। তাই এই দুজন আসামির ক্ষেত্রে ন্যায়বিচার পাব বলে আমি আশাবাদী।
এর আগে দুদক ও আসামিপক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে গত ১৪ সেপ্টেম্বর এই মামলায় রায়ের জন্য ৫ অক্টোবর দিন ধার্য করা হয়।
২০১৯ সালের ১০ জুলাই ক্ষমতার অপব্যবহার করে ভুয়া ঋণের মাধ্যমে চার কোটি টাকা স্থানান্তর ও আত্মসাৎ করার অভিযোগে ২০১৯ সালের ১০ জুলাই দুদকের পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেন বাদী হয়ে মামলা করেন।
মামলার বিবরণে বলা হয়েছে, ২০১৬ সালের ৬ নভেম্বর আসামি শাহজাহান ও নিরঞ্জন চন্দ্র ফারমার্স ব্যাংকের গুলশান শাখায় দুটি অ্যাকাউন্ট খোলে দুই কোটি টাকা করে মোট চার কোটি টাকা ঋণের আবেদন করেন। তাদের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট এবং ঋণের আবেদনে উত্তরার ১০ নম্বর সেক্টরের ১২ নম্বর রোডের ৫১ নম্বর বাড়ির ঠিকানা ব্যবহার করা হয়, যার মালিক ছিলেন তৎকালীন প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা।
জামানত হিসেবে আসামি রনজিৎ চন্দ্রের স্ত্রী সান্ত্রী রায়ের নামে সাভারের ৩২ শতাংশ জমির কথা উল্লেখ করা হয় ঋণের আবেদনে। ওই দম্পতি এস কে সিনহার পূর্ব পরিচিত ও ঘনিষ্ঠ বলে উল্লেখ করা হয়েছে মামলার এজাহারে। দুদক বলছে, ব্যাংকটির তৎকালীন এমডি এ কে এম শামীম কোনো ধরনের যাচাই-বাছাই ছাড়াই, ব্যাংকের নিয়ম-নীতি না মেনে, ক্ষমতার অপব্যবহার করে ঋণ দুটি অনুমোদন করেন।
ওই বছরের ৭ নভেম্বর ঋণের আবেদন হওয়ার পর ‘অস্বাভাবিক দ্রুততার’ সঙ্গে তা অনুমোদন করা হয়। পরদিন মোট চার কোটি টাকার দুটি পে-অর্ডার ইস্যু করা হয় এস কে সিনহার নামে। ৯ নভেম্বর সোনালী ব্যাংকের সুপ্রিম কোর্ট শাখায় এস কে সিনহার অ্যাকাউন্টে জমা হয়।
পরে বিভিন্ন সময়ে ক্যাশ, চেক ও পে-অর্ডারের মাধ্যমে ওই টাকা উত্তোলন করা হয়। এর মধ্যে এস কে সিনহার ভাইয়ের নামে শাহজালাল ব্যাংকের উত্তরা শাখার অ্যাকাউন্টে দুটি চেকে দুই কোটি ২৩ লাখ ৫৯ হাজার টাকা স্থানান্তর করা হয় ওই বছরের ২৮ নভেম্বর।
মামলা তদন্ত করে ২০১৯ সালের ৯ ডিসেম্বর চার্জশিট দাখিল করেন দুদক পরিচালক বেনজীর আহমেদ। ২০২০ সালের ১৩ আগস্ট একই আদালত ১১ আসামির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেন। চলতি বছর ২৪ আগস্ট মামলাটির সাক্ষ্য গ্রহণ শেষ হয়। মামলায় ২১ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন আদালত। সূত্র: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম



google.com, pub-4074757625375942, DIRECT, f08c47fec0942fa0

জাতীয় এর আরও খবর

পুলিশ বলছে ফেসবুক কমেন্টের জেরে পীরগঞ্জে হিন্দুদের বাড়িঘরে আগুন পুলিশ বলছে ফেসবুক কমেন্টের জেরে পীরগঞ্জে হিন্দুদের বাড়িঘরে আগুন
আজ শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেল এর ৫৭তম জন্মদিন আজ শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেল এর ৫৭তম জন্মদিন
রোহিঙ্গারা এবং আটকে পড়া পাকিস্তানিরা দেশের জন্য বোঝা হয়ে দাঁড়িয়েছে রোহিঙ্গারা এবং আটকে পড়া পাকিস্তানিরা দেশের জন্য বোঝা হয়ে দাঁড়িয়েছে
হিন্দুদের নিরাপত্তা নিয়ে ভারতকে কেন সতর্ক করলেন প্রধানমন্ত্রী হিন্দুদের নিরাপত্তা নিয়ে ভারতকে কেন সতর্ক করলেন প্রধানমন্ত্রী
ঘোড়াঘাটে দূর্গাপূজা উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর উপহার ৫শত কেজি চাল স্থানীয় এমপির ব্যক্তিগত তহবিল থেকে মন্দির প্রতি ৩ হাজার টাকা বিতরণ ঘোড়াঘাটে দূর্গাপূজা উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর উপহার ৫শত কেজি চাল স্থানীয় এমপির ব্যক্তিগত তহবিল থেকে মন্দির প্রতি ৩ হাজার টাকা বিতরণ
চার বছরের অনুসন্ধান শেষে সাবেক প্রধান বিচারপতি সিনহার বিরুদ্ধে দুদকের মামলা চার বছরের অনুসন্ধান শেষে সাবেক প্রধান বিচারপতি সিনহার বিরুদ্ধে দুদকের মামলা
হঠাৎ করেই বন্ধ ফেসবুক-হোয়াটসঅ্যাপ হঠাৎ করেই বন্ধ ফেসবুক-হোয়াটসঅ্যাপ
করোনাকালিন এইচএসসি পরীক্ষায় মানতে হবে ১১ নির্দেশনা করোনাকালিন এইচএসসি পরীক্ষায় মানতে হবে ১১ নির্দেশনা
রাষ্ট্রায়ত্ত শিল্পখাতকে পরিকল্পিত ভাবে ধ্বংস করে দেয়া হচ্ছে রাষ্ট্রায়ত্ত শিল্পখাতকে পরিকল্পিত ভাবে ধ্বংস করে দেয়া হচ্ছে

আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)