শিরোনাম:
●   মনোনয়ন জমা দিলেন উজানগ্রাম ইউপি’র সানোয়ার মোল্লা ●   রাঙামাটি কারাগারে মাদকবিরোধী গণসচেতনতামূলক আলোচনা সভা ●   রুমা উপজেলায় মাসিক আইন শৃঙ্খলা সভা অনুষ্ঠিত ●   রাঙামাটিতে দুর্বৃত্তের গুলিতে পিসিজেএসএস নেতা আবিস্কার চাকমা নিহত ●   দেশের প্রথম তৃতীয় লিঙ্গের চেয়ারম্যানকে শুভেচ্ছা জানালেন কালীগঞ্জ থানার ওসি ●   পাটিকাবাড়ি ইউপি’র চেয়ারম্যানের মাদক সেবনের ভিডিও ভাইরাল ●   বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অঞ্চলের উন্নয়ন কর্মকান্ড দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেন সৌদি মন্ত্রী ●   কাফনের কাপড় গলায় ঝুলিয়ে প্রচারণা চালানো বিদ্রোহী প্রার্থী চেয়ারম্যান নির্বাচিত ●   কুষ্টিয়ায় বিদ্রোহীদের চাপে নৌকার ভরাডুবি ●   ঝালকাঠিতে নারীর রাজনৈতিক ক্ষমতায়ন : নীতিমালা বাস্তবায়নের সভা ●   ময়মনসিংহ মেডিকেলের করোনা ইউনিটে করোনা উপসর্গে ৩ জনের মৃত্যু ●   কাউখালিতে ৪ ইউপিতে নিবাচন সম্পন্ন ●   রাঙামাটিতে ভোট চুরি ও ভোট গননায় অনিয়মে সড়ক অবরোধ ●   নবীগঞ্জে ইউপি নির্বাচনে ১৩ ইউপির মধ্যে ৪টি নৌকা ৪টি বিদ্রোহী,৩টি বিএনপি,২টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী জয়ী ●   হিজড়া প্রার্থীর কাছে পাঁচ হাজার ভোটের ব্যবধানে নৌকার ভরাডুবি ●   দীঘিনালা ও মহালছড়ির ৭ ইউপিতে নির্বাচনে জয়ী যারা ●   নিষিদ্ধ ঘোষিত পূর্ব বাংলা কমিউনিষ্ট পার্টি-এমএল’র সক্রিয় সদস্য গ্রেফতার ●   তামাক কোম্পানির সিএসআর বন্ধ করতে হবে ●   বাংলাদেশে এখন একটা গাছের পাতা নড়তে পারে না শেখ হাসিনার কথা ছাড়া : সোনার বাংলা পার্টির ১২তম বর্ষপূর্তিতে মান্না ●   মাইসছড়ি ইউপিতে আনারস মার্কার স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী সাজাই মারমা জয়ী ●   নির্বাচনী সহিংসতায় দীঘিনালায় ম্যাজিস্ট্রেটের গাড়িতে হামলা : আহত-১৬ ●   তৃতীয় ধাপে ইউপি নির্বাচন গাইবান্ধায় চলছে ভোটগ্রহণ ●   বিশ্বনাথে আমন ধানের বাম্পার ফলন : কৃষকের মুখে হাসি ●   শহীদ মিলন দিবসে শহীদের প্রতি বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির শ্রদ্ধা জ্ঞাপন ●   ভারতে কৃষক জাগরণের বিজয়ের বার্তা-সাইফুল হক ●   মুক্তিযোদ্ধাদের আবাসন নির্মাণ কাজে দরপত্র প্রদানে অনিয়মের অভিযোগ ●   রামগড়ে প্রশ্নপত্র ফাঁস,বার্ষিক পরীক্ষা বাতিল ●   কালীগঞ্জে গভীর রাতে কৃষককে কুপিয়ে হত্যা ●   চার্চফিল্ড ওয়ার্ডে লিবডেমের কাউন্সিলার প্রার্থী অহিদ উদ্দিনের গণসংযোগ ●   দীঘিনালার ইউপি নির্বাচনে এই প্রথমবারের মতো চেয়ারম্যান পদে নারী প্রার্থী
রাঙামাটি, বুধবার, ১ ডিসেম্বর ২০২১, ১৭ অগ্রহায়ন ১৪২৮


CHT Media24.com অবসান হোক বৈষম্যের
শুক্রবার ● ২৯ অক্টোবর ২০২১
প্রথম পাতা » কৃষি » শীতের শুরুতে ঝিনাইদহে খেঁজুর গাছ তোলার ধুম
প্রথম পাতা » কৃষি » শীতের শুরুতে ঝিনাইদহে খেঁজুর গাছ তোলার ধুম
৭৬ বার পঠিত
শুক্রবার ● ২৯ অক্টোবর ২০২১
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

শীতের শুরুতে ঝিনাইদহে খেঁজুর গাছ তোলার ধুম

ছবি : সংবাদ সংক্রান্তজাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি :: ঝিনাইদহের ৬টি উপজেলার সর্বত্র-ই মধু বৃক্ষ খেঁজুর গাছ তোলার ধুম পড়েছে। আর মাত্র কয়েক দিন পরই গ্রাম বাংলার গৌরব আর ঐতিহ্যের প্রতীক মধু বৃক্ষকে ঘিরে গ্রামীন জনপদে শুরু হবে এক উৎসব মুখর পরিবেশ। মধু বৃক্ষ থেকে গাছিরা সংগ্রহ করবে সুমিষ্টি খেজুরের রস। তৈরি হবে লোভনীয় গুড় ও পাটালী। রস জ¦ালীয়ে ভিজানো পিঠা ও পায়েস খাওয়ার ধুম পড়বে প্রতিটি গ্রামীন জনপদে। সৃষ্টি হবে গ্রাম বাংলার এক নতুন আমেজের। এক সময় ঝিনাইদহে খেজুরের রস, গুড় ও পাটালী উৎপাদনে প্রসিদ্ধ ছিল। দেশের বাইরে ও এর বেশ কদর রয়েছে। অতীতে এখানকার খেজুর রসের যে যশ ছিল বর্তমানে সে যশ হারিয়ে যাচ্ছে। গ্রাম বাংলার সম্ভাবনাময় অর্থনৈতিক এ খাতে সরকারী কোন পৃষ্টপোষকতা না থাকায় বর্তমানে আগের মত রস গুড় উৎপাদন হয় না। ইতোমধ্যে শহরের লোকজন গ্রামের গাছ কাটা গাছিদের সাথে যোগাযোগ শুরু করেছে। আবার গাছিদের আগাম টাকা দিচ্ছেন ভাল গুড় ও পাটালী পাবার আশায়। আগাম টাকা পেয়ে অনেক গাছি রস সংগ্রহের উপকরন তৈরি করছেন। কালীগঞ্জ উপজেলার চাঁচড়া গ্রামের গাছি ইউনুছ আলী জানান, এ বছর গাছিরা আগে ভাগেই খেজুর গাছ তোলা শুরু করেছে। এ উপজেলায় এখন পর্যন্ত শীত জেঁকে না বসলেও গাছিরা খেজুর গাছ তোলা, চাঁচ দেওয়া, দা তৈরি, দড়ি ও মাটির কলস (ভাড়) কেনা, রস জ¦ালানোর স্থান তৈরি করা সহ যাবতীয় কাজ পুরোদমে চালিয়ে যাচ্ছে। আসন্ন শীত মৌসুমকে ঘিরে গ্রাম বাংলার চিত্র পাল্টে গেছে। ঝিনাইদহের ৬টি উপজেলার এমন কোন গ্রাম নেই যেখানে কমবেশি খেঁজুর গাছ নেই। এসব গ্রামের গাছিরা খেঁজুরের রস সংগ্রহের জন্য ব্যতিব্যস্ত হয়ে পড়েছে।

ঝিনাইদহে বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমানের ৪৯তম শাহাদত বার্ষিকী
ঝিনাইদহ :: বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহি হামিদুর রহমানের ৪৯তম শাহাদাত বার্ষিকী ২৮ অক্টোবর। ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুর উপজেলার খর্দ্দখালিশপুর গ্রামের এ বীর সন্তান ১৯৭১ সালের এই দিনে মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার ধলাই সীমান্তে পাকিস্থানী হানাদার বাহিনীর সঙ্গে সম্মুখযুদ্ধে শহিদ হন। ঝিনাইদহ জেলা শহর থেকে ৪০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত হামিদুর রহমানের গ্রাম খর্দ্দখালিশপুর। মুক্তিযুদ্ধ শুরু হলে হামিদুর রহমান মুক্তিযুদ্ধে যোগ দেন। মৌলভীবাজার জেলার ধলাইতে ছিল পাকিস্তানি বাহিনীর শক্ত ঘাঁটি। কৌশলগত দিক দিয়ে এ ঘাঁটি দখল জরুরি হয়ে পড়ে মুক্তিবাহিনীর জন্য। ২৮ অক্টোবর ধলাই পাকিস্থানী সেনা ঘাঁটি আক্রমণ করে মুক্তিবাহিনী। তুমুল যুদ্ধ শুরু হয়। দুটি মেশিনগান পোস্ট থেকে তুমুল গুলিবর্ষণ করতে থাকে পাকিস্থানী সেনারা। মেশিনগান পোস্ট ধ্বংসের দায়িত্ব পড়ে হামিদুর রহমানের ওপর। এ বীর এগিয়ে যান। ধ্বংস করেন মেশিনগান পোস্ট। মুক্তিবাহিনীর দখলে আসে পাকিস্থানী সেনা ঘাঁটি। শত্রুর গুলিতে তিনি শাহাদত বরণ করেন। তার সহযোদ্ধাগণ মরদেহ ভারতে নিয়ে ত্রিপুরার আমবাশা এলাকায় সমাহিত করেন। ২০০৭ সালে এ বীরের দেহাবশেষ ভারত থেকে দেশে ফিরিয়ে এনে ঢাকার মিরপুরে শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে পুনরায় সমাহিত করা হয়েছে। বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমানের ভাইপো হাফিজুর রহমান সরকারিভাবে শাহাদাত বার্ষিকী পালনের দাবি জানান। বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহি হামিদুর রহমান সরকারি কলেজের পক্ষ থেকে দিনটি পালনের জন্য আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে। সরকারি শহিদ সিপাহি বীরশ্রেস্ট হামিদুর রহমান ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আমিনুল হক দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বীরশ্রেষ্ট হামিদুর রহমানের শাহাদতাবার্ষিকী পালনের আহ্বান জানান।



google.com, pub-4074757625375942, DIRECT, f08c47fec0942fa0

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)