শিরোনাম:
●   একই পরিবারে সরকারী তিনটি ঘর নিয়ে হৈ চৈ ●   আধুনিক বাংলাদেশ গড়ার রূপকার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা : পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর ●   ●   বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির দশম কংগ্রেসের লোগো উন্মোচন ●   সিলেটে এডভোকেট জামানের উপর হামলা ●   চুয়েটে চারটি উন্নয়ন কাজের ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন ●   জমি বেদখলের ষড়যন্ত্র বন্ধের দাবিতে বিভিন্ন স্থানে ইউপিডিএফের বিক্ষোভ ●   জমি বেদখলের প্রতিবাদে দীঘিনালায় ইউপিডিএফের বিক্ষোভ ●   আগামীকাল বিশ্ব হার্ট দিবস ●   আত্রাইয়ে বিশ্ব পর্যটন দিবস পালন ●   গাবতলীতে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অনিয়মের তদন্ত শুরু ●   দেখা মিলেছে চার পা বিশিষ্ট মোরগ ●   নিয়োগ বাণিজ্যে কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ ●   জামাই শশুড়কে হত্যা করে অন্যকে ফাঁসানোর চেষ্টা ●   ঈশ্বরগঞ্জে ভ্রাম্যমান আদলতে জরিমানা ●   ঝিনাইদহ জেলা পরিষদ নির্বাচনী লড়াই জমে উঠেছে ●   ভূমি বেদখল বন্ধের দাবিতে বিভিন্ন স্থানে ইউপিডিএফের বিক্ষোভ ●   মিরসরাইয়ে ট্রেনে কাটা পড়ে গৃহকর্ত্রীর মৃত্যু ●   খাগড়াছড়িতে পানিতে ডুবে ২শিশুর মৃত্যু ●   বিএনপি’র পক্ষ থেকে বিশ্বনাথ পৌর নির্বাচন বর্জনের আহ্বান ●   ওমানে নারী ক্রিকেট দলের অধিনায়ক রাউজানের হেয়াম ●   রাঙামাটিতে জেলা উন্নয়ন কমিটির সভা ●   ঝিনাইদহে এক প্রধান শিক্ষকের রহস্যজনক মৃত্যু ●   মৃৎশিল্পীর রঙ তুলির আঁচড়ে মূর্ত হয়ে উঠছে দেবী দুর্গার রুপ ●   রাউজানে কেউচিয়া খাল ভরাট : চাষাবাদে দুর্ভোগ ●   নবীগঞ্জে ৯৪টি মন্ডপে শারদীয় দূর্গাপুজার প্রস্তুতি ●   বাবার লাশ রেখে এসএসসি পরীক্ষা দিলেন মাসুদা ●   ৭১ টিভি’র নানিয়ারচরের সংবাদ সংগ্রাহক পদ থেকে মেরাজকে অব্যাহতি ●   ভূমি বেদখল বন্ধের দাবিতে মাটিরাঙ্গায় ইউপিডিএফের বিক্ষোভ ●   প্রধানমন্ত্রী পার্বত্যবাসীর ভাগ্যোন্নয়নে ব্যাপক উন্নয়ন বরাদ্দ দিয়েছে : পার্বত্য মন্ত্রী
রাঙামাটি, বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯



CHT Media24.com অবসান হোক বৈষম্যের
বৃহস্পতিবার ● ৮ সেপ্টেম্বর ২০২২
প্রথম পাতা » গুনীজন » নান্দাইলের অগ্নিপুরুষ বিপ্লবী সুরেন্দ্র মোহন ঘোষ মধু ঘোষের ৪৬ তম মৃত্যুবার্ষিকী
প্রথম পাতা » গুনীজন » নান্দাইলের অগ্নিপুরুষ বিপ্লবী সুরেন্দ্র মোহন ঘোষ মধু ঘোষের ৪৬ তম মৃত্যুবার্ষিকী
৪৬ বার পঠিত
বৃহস্পতিবার ● ৮ সেপ্টেম্বর ২০২২
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

নান্দাইলের অগ্নিপুরুষ বিপ্লবী সুরেন্দ্র মোহন ঘোষ মধু ঘোষের ৪৬ তম মৃত্যুবার্ষিকী

ছবি : সংবাদ সংক্রান্ত মো. আজিজুর রহমান ভূঁঞা বাবুল,ময়মনসিংহ প্রতিনিধি :: আজ ৭ সেপ্টেম্বর নান্দাইলের অগ্নিপুরুষ বিপ্লবী সুরেন্দ্র মোহন ঘোষ মধু ঘোষের ৪৬ তম মৃত্যুবার্ষিকী।সংগ্রামী রাজণীতিবিদ ও যুগান্তর দলের অন্যতম কান্ডারি সুরেন্দ্র মোহন ঘোষ মধু ঘোষ ছিলেন ভারতীয় উপমহাদেশের ব্রিটিশ বিরোধী স্বাধীনতা আন্দোলনের একজন অন্যতম ব্যক্তিত্ব ও যুগান্তর দলের অন্যতম পুরোধা। তিনি ছিলেন ভারতের লোকসভা ও রাজ্যসভার সদস্য। তিনি হেমেন্দ্রকেশোর আচার্য চৌধুরীর প্রতিষ্ঠিত ময়মনসিংহের সাধনা সমিতির সদস্য ছিলেন। তাঁর বিপ্লবী বন্ধু মহারাজ ত্রৈলোক্যনাথ চক্রবর্তী তাঁরই দিল্লীর বাড়িতে ১৯৭০ সালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

বৃটিশ ভারতের বৃহত্তর ময়মনসিংহ জেলার নান্দাইল উপজেলার খারুয়া ইউনিয়নের খারুয়া গ্রামে ১৮৯৩ সালের ২২ এপ্রিল এক স¤্রান্ত হিন্দু পরিবারে জন্ম গ্রহন করেন তিনি।তাঁর বাবার নাম কামিনী মোহন ঘোষ।তিনি ১৪ বছর বয়সে স্বদেশী আন্দোলনে যোগ দেন।ময়মনসিংহ জেলা শহরের মৃত্যুঞ্জয় স্কুল ও আনন্দ মোহন কলেজে পড়াশোনা করেন। প্রথম বার্ষিক শ্রেণিতে পড়ার সময় বেআইনি আগ্নেয়াস্ত্র রাখার অভিযোগে এক বছর কারদন্ড ভোগ করেন।সেই থেকে ১৯৪৫ সাল পর্যন্ত
বিভিন্ন সময়ে দীর্ঘ প্রায় ২৪ বছর ব্রিটিশ রাজের কারাদন্ড ভোগ করেন এবং মোট ৯৬ দিন জেলে অনশন করেন ।তিনি ‘মধু ঘোষ’ অর্থাৎ ‘মধুদা’ নামেই সমধিক পরিচিত ছিলেন।

১৯০৭ সাল থেকে ১৯৩৮ সাল পরবর্তী যুগান্তর দল বিলুপ্ত হয়ে যাওয়া পর্যন্ত তিনি দলের বিশিষ্ট কর্মী ও নেতা হিসেবে যুক্ত ছিলেন।১৯২৩ সাল থেকে ১৯২৯ সাল পর্যন্ত দেশবন্ধু চিত্তরঞ্জন দাশের স্বরাজ দলে তাঁর বিশেষ ভূমিকা ছিল। ১৯২০ সালে জাতীয় কংগ্রেসে যোগ দিয়ে আমৃত্যু তার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন।

অসহযোগ আন্দোলনে তার যুগান্তর দল গান্ধীজির নেতৃত্ব মেনে নিলেও তিনি বা তার দল অহিংসাকে নীতি হিসেবে গ্রহণ করেনি। ১৯২৮ সালে কলকাতা ঐতিহাসিক কংগ্রেস অধিবেশনে নেতৃত্বের স্বাক্ষর রাখেন এই বিপ্লবী। অবিভক্ত বাংলায় ত্রিশের দশকে যতীন্দ্র মোহন সেনগুপ্ত ও সুভাষচন্দ্র ্র বসুর নেতৃত্বের বিরোধ দেখা দিলে তিনি তাঁর দল নিয়ে সুভাষচন্দ্র বসুর পাশে এসে দাঁড়ান।

ত্রিপুরা কংগ্রেসের আগ পর্যন্ত তার সঙ্গে সুভাষচন্দ্র ও শরৎচন্দ্র বসুর ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল। বিপ্লবের পথে যারা তার অগ্রজপ্রতিম ছিলেন তাদের মধ্যে যতীন্দ্র্রনাথ মুখোপাধ্যায় ও ডা. যাদুগোপাল মুখোপাধ্যায়ের নাম উল্লেখযোগ্য। তাঁর কারাসঙ্গীদের মধ্যে ছিলেন বিপ্লবী সূর্য সেন এবং মান্দালয় জেলে নেতাজী সুভাষচন্দ্র।

সুরেন্দ্র্রমোহন ঘোষ ১৯৩৯ সাল বঙ্গীয় প্রাদেশিক কমিটির অ্যাডহক কমিটির সভাপতি হন।দীর্ঘদিন তিনি সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৪৬ সালে কন্সটিটুয়েন্ট এসেম্বলির সদস্য নির্বাচিত হয়ে ভারতবর্ষের ভাবী শাসনতন্ত্র তৈরির কাজে আত্মনিয়োগ করেন। ১৯৫০-১৯৫২ সারে অস্থায়ী পার্লামেন্টের সদস্য এবং এবং ভারতীয় লোক সভার সদস্য হন।১৯৫৬ ও ১৯৬২ সালে রাজ্যসভার সদস্য এবং ১৯৬২ সাল থেকে ১৯৬৭ সাল পর্যন্ত পার্লামেন্টে কংগ্রেস দলের ডিপুটি লিডার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।নান্দাইলের মাটিতে জন্ম নেয়া এই অগ্নিপুরুষ নিজ অঞ্চলের চেয়ে ভারতবর্ষে ব্যাপক খ্যাতিলাভ করেন। আজীবন বিপ্লবী সুরেন্দ্র মোহন ঘোষ মধু ঘোষ ১৯৭৬ সালের ৭ সেপ্টেম্বর বাধ্যক্যজনিত সমস্যায় ভারতের মাটিতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।





google.com, pub-4074757625375942, DIRECT, f08c47fec0942fa0

আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)