শিরোনাম:
●   শ্রেষ্ঠ এসআই হলেন গাবতলী মডেল থানার কুদ্দুস ●   কোটা সংস্কার দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশ ও ছাত্রলীগ-যুবলীগের হামলায় ৬ শিক্ষার্থীর প্রাণহানি ঘটনায় বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির নিন্দা ●   চুয়েটের বাসে হামলা, পেটানো হয়েছে শিক্ষার্থীদের ●   ঝিনাইদহে কোটা আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলা ●   ৩ দফা দাবীতে প্রজন্ম ৭১ এর কুষ্টিয়ায় মানববন্ধন ●   বগুড়ায় বৃক্ষরোপন ও চারাগাছ বিতরণ ●   ঈশ্বরগঞ্জে মাদ্রাসা শিক্ষিকার আত্মহত্যা ●   রাবিপ্রবি স্থাপনা প্রকল্পের মাস্টার প্ল্যান বিষয়ক ত্রিপক্ষীয় সভা অনুষ্ঠিত ●   মোরেলগঞ্জে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহে লতিফিয়া ফাজিল ডিগ্রী মাদ্রাসা শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন ●   ঘোড়াঘাটে পোনা মাছ অবমুক্তকরণ ●   কুষ্টিয়া কুমারখালীতে ৩ দিনে ৩ খুন থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে ●   পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের পরিচালনা বোর্ড এর ২০২৪-২০২৫ অর্থ বছরে ১ম সভা ●   বাগেরহাট পৌরসভায় অধিকাংশ গুরুত্বপূর্ণ সড়কই খানাখন্দে ভরা মানুষের ভোগান্তি চরমে ●   রাউজানে একরাতে দুই কৃষকের ৫টি গরু চুরি ●   পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ২৬ বছর পূর্তি উদযাপিত ●   প্রধানমন্ত্রীর অনভিপ্রেত বক্তব্য প্রত্যাহার করে নেবার আহবান ●   গাজীপুরে মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার ও অবৈধ পাচারবিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস পালন ●   মাঝরাতে উত্তাল ঢাবি : ছাত্রলীগের চার নেতার পদত্যাগ ●   পরিচয় মিলেছে ৪শত কোটি টাকার মালিক সেই পিয়নের ●   ড. এফ দীপংকর বৌদ্ধ ভিক্ষুর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার : হত্যা না আত্মহত্যা ●   ডোনাল্ড ট্রাম্পের ওপর হামলার ঘটনায় বিশ্ব নেতাদের প্রতিক্রিয়া ●   নবীগঞ্জে সড়ক নির্মান কাজের অনিয়ম ●   মোরেলগঞ্জের নীলকুঠি কুঠিবাড়ীর অস্বিত্ব বিলুপ্তির পথে ●   নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের কার্যকরী কমিটির সভা ●   ঈশ্বরগঞ্জে ফুট ব্রীজের পাটাতন বিধ্বস্ত : যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন ●   ঘোড়াঘাটে ওয়ার্ল্ড ভিশনের সমাপনী আলোচনা সভা ●   মিরসরাই প্রেসক্লাবের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন ●   দীর্ঘ ১৮ বছরেও চালু হয়নি মোরেলগঞ্জে পানগুছি নদীর ফেরিঘাট ●   খাগড়াছড়িতে মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার ও পাচারবিরোধী দিবস উদযাপন ●   রাঙামাটিতে ঐক্যবদ্ধ বড়ুয়া সমাজ গড়ে তোলার সম্ভবনার পথ দেখা দিয়েছে
রাঙামাটি, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১



CHT Media24.com অবসান হোক বৈষম্যের
মঙ্গলবার ● ২৫ জুন ২০২৪
প্রথম পাতা » আন্তর্জাতিক » ভারতকে রেল করিডোর দিয়ে বাংলাদেশ কোন বিপদ ডেকে আনছে - সরকারের কাছে ব্যাখ্যা দাবি
প্রথম পাতা » আন্তর্জাতিক » ভারতকে রেল করিডোর দিয়ে বাংলাদেশ কোন বিপদ ডেকে আনছে - সরকারের কাছে ব্যাখ্যা দাবি
৬০ বার পঠিত
মঙ্গলবার ● ২৫ জুন ২০২৪
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

ভারতকে রেল করিডোর দিয়ে বাংলাদেশ কোন বিপদ ডেকে আনছে - সরকারের কাছে ব্যাখ্যা দাবি

ছবি : সংবাদ সংক্রান্ত আজ সকালে বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি আহুত সংবাদ সম্মেলনে পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক দিল্লিতে শেখ হাসিনা-নরেন্দ্র মোদির শীর্ষ বৈঠকে সম্পাদিত সমঝোতা চুক্তি সম্পর্কে বলেছেন, সরকার ভারতের সাথে সাধারণ কুটনৈতিক দরকষাকষির ক্ষমতা পর্যন্ত হারিয়ে ফেলেছে। ভারতের সাহায্যে ক্ষমতায় থাকতে যেয়ে তারা ভারত তোষণ নীতি গ্রহণ করেছে। ভারতের অনুগত থাকার কারণে তিস্তার পানি চুক্তি, সীমান্তে বাংলাদেশীদের হত্যা বন্ধসহ বাংলাদেশের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু নিয়ে এবারও ভারতের সাথে কোন চুক্তিই করতে পারেনি। বাস্তবে এসব ইস্যু এখন টেবিলের নীচে। তিনি বলেন, ভারতের উপর সরকারের নির্ভরতা যত বাড়ছে বাংলাদেশের জাতীয় স্বার্থ - জাতীয় নিরাপত্তা ততই ঝুঁকির মধ্যে পড়ছে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে এবারও কেবল আশ্বাস নিয়েই ঢাকায় ফিরে আসতে হয়েছে। তিনি বলেন, তিস্তা নদী ব্যবস্থাপনার কথা বলে বাস্তবে পানি বন্টনের বিষয়টি তারা বাংলাদেশকে ভুলিয়ে দিতে চাইছে। তিনি বলেন, এটা কিছুটা “গরু মেরে জুতা দান করার” মত ঘটনা। গংগার পানি চুক্তি কবে কিভাবে নবায়ন হবে তাও পরিস্কার করা হয়নি।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, তিস্তা চুক্তির পরিবর্তে এবার পানির ব্যাপারে বাংলাদেশকে একটা বুঝ দেবার জন্য তিস্তা নদী সংরক্ষণ ও ব্যবস্থাপনায় ভারত যুক্ত হবার কথা বলেছে। তিস্তাকে শুকিয়ে মেরে এখন তারা তিস্তার ব্যবস্থাপনায় যুক্ত হতে চায়! তাদের এই আগ্রহও দেখা যেতনা যদি চীন তিস্তা নদী ব্যবস্থাপনায় বিরাট বিনিয়োগের প্রস্তাব সহকারে আগ্রহ না দেখাত।

সংবাদ সম্মেলনে সাইফুল হক বলেন, সীমান্তে প্রায় প্রতি সপ্তাহে বিএসএফ কর্তৃক বাংলাদেশী নাগরিকদেরকে গুলি করে হত্যার বর্বোরোচিত ঘটনা বন্ধেও শীর্ষ নেতৃত্ব পর্যায়ে কার্যকরি কোন চুক্তি বা সমঝোতা হয়নি। বৈঠকের পর ভারতের পররাষ্ট্র সচিব বিনয় কোয়াত্রার বক্তব্যে (”..কখনো কখনো এমন পরিস্থিতি হয়, বিএসএফ এমনভাবে আক্রান্ত হয় যে গুলি না চালিয়ে উপায় থাকেনা”।) এটা স্পষ্ট যে, সীমান্তে বিএসএফ এর হাতে বাংলাদেশীদের হত্যা চলতেই থাকবে।আশ্চর্যজনক হচ্ছে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিব বা পররাষ্ট্রমন্ত্রী এই বক্তব্যের প্রতিবাদ পর্যন্ত করার সাহস করেননি।

তিনি বলেন, এবারকার সমঝোতা চুক্তির একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে, ভারতকে এবার প্রকারান্তরে রেল করিডোর দেয়ার চুক্তি করা হয়েছে। রেল করিডোরসহ ভারতকে বাংলাদেশের ভূখণ্ড ব্যবহার করতে কেন দেয়া হচ্ছে, বিনিময়ে বাংলাদেশ কি পাচ্ছে, ভারতকে সড়ক পথে ট্রানজিট সুবিধা দেবার পর এখন তাদেরকে একতরফা রেল সুবিধা দিয়ে বাংলাদেশের লাভ কি- এসব প্রশ্নের কোন উত্তর নেই। এসব পদক্ষেপে বাংলাদেশের জাতীয় নিরাপত্তা কতখানি ঝুঁকির মধ্যে পড়তে পারে এসব বিষয়েও সরকারের কোন মাথাব্যথা আছে বলে মনে হয়না।

তিনি উল্লেখ করেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রীর বরাতে জানা গেছে যে, উভয় সরকার প্রধান প্রতিরক্ষা সহযোগিতা বৃদ্ধি, প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম উৎপাদন, সেনাবাহিনীর আধুনিকীকরনের মত গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়েও আলোচনা করেছেন।এসব নিয়ে দেশবাসীর কাছে সরকারের পরিপূর্ণ ব্যাখ্যা দেয়া প্রয়োজন। ভারত দেশের সার্বভৌমত্ব ও জাতীয় নিরাপত্তা জন্য গুরুত্বপূর্ণ ও সংবেদনশীল বিষয়েও ঢুকে যাচ্ছে কিনা তাও সরকারের স্পষ্ট করা দরকার।

সংবাদ সম্মেলনে সাইফুল হক বলেন, সমতা,ন্যায্যতা, আন্তর্জাতিক বিধিবিধান ও পারস্পরিক স্বার্থের স্বীকৃতির ভিত্তিতে ভারতের সাথে আমাদের দ্বিপাক্ষিক সমস্যাসমূহের দ্রুত সমাধান করা জরুরী। কিন্তু ভারতের প্রতি সরকারের অনুগত থাকার নীতি - কৌশলের কারণে বিভিন্ন দিক থেকে বাংলাদেশের বিপদ যেভাবে ঘনিয়ে আসছে দেশের মানুষ কোনভাবেই তা বরদাস্ত করবেনা। তিনি জাতীয় স্বার্থ রক্ষায় দেশের মানুষ এবং সকল দেশপ্রেমিক ও গণতান্ত্রিক শক্তিকে এগিয়ে আসার উদাত্ত আহ্বান জানান।

সেগুনবাগিচায় বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সংহতি মিলনায়তনে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন পার্টির রাজনৈতিক পরিষদের সদস্য বহ্নিশিখা জামালী,আকবর খান, মীর মোফাজ্জল হোসেন মোশতাক, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য রাশিদা বেগম, এপোলো জামালী, সাইফুল ইসলাম, মীর রেজাউল আলম, কেন্দ্রীয় সংগঠক জামাল সিকদার, জোনায়েদ হোসেন, মোহাম্মদ আলী প্রমুখ।





আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)